Monday, 24 July, 2017 | ৯ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধা কাঁকন বিবির চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন মেয়র আরিফ  » «   ৪১৮ যাত্রী নিয়ে ঢাকা ছাড়ল প্রথম হজ ফ্লাইট  » «   পাসের হারে সিলেট শিক্ষা বোর্ড শীর্ষে রয়েছে  » «   সিলেট শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৭২ ॥ জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭০০ জন  » «   সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে ৩০টি স্বর্ণের বার জব্দ  » «   ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করায় সিলেটে প্রকাশ্যে কান ধরে টানাহেঁচড়া  » «   সিলেটে নির্বাচনে ৫০ নতুন মুখ  » «   বিয়ানীবাজারের নদী ভাঙ্গন রোধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা  » «   পুলিশের গাড়ী চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  » «   রাগীব আলী ও তাঁর ছেলের আপীল ১৭ আগস্টের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ  » «   ওসমানীনগরে রড ছাড়াই কলেজ ভবন নির্মাণ, আটক ৩  » «   সিলেটকে এগিয়ে নিতে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে: প্রধান বিচারপতি  » «   অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘সিলেট টেলিগ্রাফ’র যাত্রা শুরু  » «   নবীগঞ্জের সেই পাগলীকে ঢাকায় নিয়ে গেলেন শামীম  » «   হজ যাত্রীদের বিমানের বর্ধিত ভাড়া মওকুফ  » «  
Advertisement
Advertisement

সড়ক প্রশস্ত করা নিয়ে বিরোধ: সিসিক ও উইমেন্স হাসপাতালের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

দৈনিকসিলেটডটকম: মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মধ্যে সড়ক প্রশস্ত করা নিয়ে কয়েকদিন থেকে চলছিল বিরোধ। আজ এই বিরোধ নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হাসপাতালটির ভাইস-চেয়ারম্যান বশির আহমদের অভিযোগ, হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. শাহ আব্দুল আহাদকে মারধর করার অভিযোগ করেছেন সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
অন্যদিকে  আরিফুল হক চৌধুরী এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, সড়ক প্রশস্ত করার জন্য হাসপাতালের জায়গা ছাড়ার নোটিশ দিলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমার সাথে দুর্ব্যবহার করেছে।
উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজের ভাইস-চেয়ারম্যান বশির আহমদ বলেন, মিরাবক্সটুলা সড়ক বড় করার জন্য আমাদের ছয় ফুট জায়গা ছড়ার জন্য আজ সকালে সিটি কর্তৃপক্ষ নোটিশ প্রদান করে। আমরা তাদেরকে আইনী মেনে নোটিশ প্রদান করার কথা বলি।

এপর বেলা ৩ টার দিকে মেয়র আরিফুল হক ২০/২৫ জন লোক নিয়ে হাসপাতালে এসে হাসপাতালের এমডি  ডা. শাহ আব্দুল আহাদকে মারধর করেন।

বশির আহমদ বলেন, এ ঘটনার কিছুক্ষণ পরই মেয়র আরিফ হাসপাতাল ভেঙ্গে ফেলার জন্য সিটি করপোরেশনের বুলডোজার পাঠিয়েছেন।

এব্যাপারে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, মিরবক্সটুলা সড়ক বড় করার কাজ চলছে। এজন্য জায়গা ছাড়ার জন্য ওইমেন্স হাসপাতাল কর্তপক্ষকে নোটিশ প্রদান করলে তা আপত্তি জানান। বিকেলে কয়েকজন কাউন্সিলর ও সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের নিয়ে আমি হাসপাতালে গেলে তারা আমার সাথে দুর্ব্যবহার করেন।
হাসপাতালের এমডিকে মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে জানান মেয়র। তিনি বলেন, সড়কের জায়গা না ছাড়তেই তারা এসব মিথ্যে বলে বিষয়টিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে চাচ্ছে।

কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. গৌছুল হোসেন বলেন, মেয়রের সাথে এক চিকিৎসকের তর্কতার্কি হয়েছে বলে শুনেছি। আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ এখনও আসেনি।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

উপদেষ্টা: ড.এ কে আব্দুল মোমেন
সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: