Sunday, 19 November, 2017 | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
কান থেকে ডিভাইস পড়ে ধরা খেলেন শাবিতে ভর্তিচ্ছু দুই শিক্ষার্থী!  » «   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা: তদন্তের নির্দেশ আদালতের  » «   মৌলভীবাজারে অবাধে চলছে পাহাড় কাটা  » «   কিংবদন্তি নেতা দেওয়ান ফরিদ গাজী  » «   নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে:জেলা প্রশাসক  » «   আম্বরখানায় ছাত্রলীগ ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, অবরোধ  » «   সম্মানিত হয়েছে ইউনেস্কো : ড. জাফর ইকবাল  » «   সিলেট মহানগর বিএনপির আনন্দ সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   খাদিমপাড়ায় টিলাকাটার অভিযোগে একজনকে দুইলক্ষ টাকা জরিমানা  » «   জৈন্তাপুরে বেকারদের জন্য ন্যাশনাল সার্ভিস চালু  » «   এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আগুন: ২৯ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী জড়িত  » «   ওসমানী মেডিকেলের ইর্মাজেন্সী গেইটে অটোরিক্সা ভাংচুর  » «   যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের ওপর হামলার ঘটনা বেড়েই চলেছে  » «   সিলেটে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ সমাবেশ  » «   সিলেটে শতকোটি টাকা ব্যয়ে ইসকন মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন  » «  

 

Advertisement
Advertisement

সড়ক প্রশস্ত করা নিয়ে বিরোধ: সিসিক ও উইমেন্স হাসপাতালের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

দৈনিকসিলেটডটকম: মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মধ্যে সড়ক প্রশস্ত করা নিয়ে কয়েকদিন থেকে চলছিল বিরোধ। আজ এই বিরোধ নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হাসপাতালটির ভাইস-চেয়ারম্যান বশির আহমদের অভিযোগ, হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. শাহ আব্দুল আহাদকে মারধর করার অভিযোগ করেছেন সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
অন্যদিকে  আরিফুল হক চৌধুরী এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, সড়ক প্রশস্ত করার জন্য হাসপাতালের জায়গা ছাড়ার নোটিশ দিলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমার সাথে দুর্ব্যবহার করেছে।
উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজের ভাইস-চেয়ারম্যান বশির আহমদ বলেন, মিরাবক্সটুলা সড়ক বড় করার জন্য আমাদের ছয় ফুট জায়গা ছড়ার জন্য আজ সকালে সিটি কর্তৃপক্ষ নোটিশ প্রদান করে। আমরা তাদেরকে আইনী মেনে নোটিশ প্রদান করার কথা বলি।

এপর বেলা ৩ টার দিকে মেয়র আরিফুল হক ২০/২৫ জন লোক নিয়ে হাসপাতালে এসে হাসপাতালের এমডি  ডা. শাহ আব্দুল আহাদকে মারধর করেন।

বশির আহমদ বলেন, এ ঘটনার কিছুক্ষণ পরই মেয়র আরিফ হাসপাতাল ভেঙ্গে ফেলার জন্য সিটি করপোরেশনের বুলডোজার পাঠিয়েছেন।

এব্যাপারে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, মিরবক্সটুলা সড়ক বড় করার কাজ চলছে। এজন্য জায়গা ছাড়ার জন্য ওইমেন্স হাসপাতাল কর্তপক্ষকে নোটিশ প্রদান করলে তা আপত্তি জানান। বিকেলে কয়েকজন কাউন্সিলর ও সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের নিয়ে আমি হাসপাতালে গেলে তারা আমার সাথে দুর্ব্যবহার করেন।
হাসপাতালের এমডিকে মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে জানান মেয়র। তিনি বলেন, সড়কের জায়গা না ছাড়তেই তারা এসব মিথ্যে বলে বিষয়টিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে চাচ্ছে।

কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. গৌছুল হোসেন বলেন, মেয়রের সাথে এক চিকিৎসকের তর্কতার্কি হয়েছে বলে শুনেছি। আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ এখনও আসেনি।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: