Monday, 20 November, 2017 | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
মৌলভীবাজারের ৫ আসামির রায় যেকোনো দিন  » «   নেতাকর্মীর ‘কদর’ বাড়ছে মেয়র পদপ্রার্থীর কাছে  » «   খাজাঞ্চিবাড়ি ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষিকা শম্পা চক্রবর্তীর জাল সনদ: তোলপাড়  » «   কান থেকে ডিভাইস পড়ে ধরা খেলেন শাবিতে ভর্তিচ্ছু দুই শিক্ষার্থী!  » «   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা: তদন্তের নির্দেশ আদালতের  » «   মৌলভীবাজারে অবাধে চলছে পাহাড় কাটা  » «   কিংবদন্তি নেতা দেওয়ান ফরিদ গাজী  » «   নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে:জেলা প্রশাসক  » «   আম্বরখানায় ছাত্রলীগ ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, অবরোধ  » «   সম্মানিত হয়েছে ইউনেস্কো : ড. জাফর ইকবাল  » «   সিলেট মহানগর বিএনপির আনন্দ সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   খাদিমপাড়ায় টিলাকাটার অভিযোগে একজনকে দুইলক্ষ টাকা জরিমানা  » «   জৈন্তাপুরে বেকারদের জন্য ন্যাশনাল সার্ভিস চালু  » «   এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আগুন: ২৯ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী জড়িত  » «   ওসমানী মেডিকেলের ইর্মাজেন্সী গেইটে অটোরিক্সা ভাংচুর  » «  

 

Advertisement
Advertisement

ভুয়া খবরের বিচলিত এক ইমাম

টরন্টো: সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভুয়া খবরের মাঝে নিজের ছবি দেখে রীতিমতো বিস্মিত কানাডার টরন্টো শহরের এক ইমাম।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি পোস্টে লেখা হয়েছে, কয়েকদিন আগে আমেরিকার হিউস্টনে হারিকেন হার্ভের প্রভাবে সৃষ্ট বন্যার সময় স্থানীয় বাসিন্দারা ‘রামাশান মসজিদে’ আশ্রয় নিতে গেলে সেখানকার ইমাম ‘আসওয়াত টুরাডস’ তাদের মসজিদের ভেতরে আশ্রয় দিতে অস্বীকৃতি জানায়।

কিন্তু সে পোস্টে যার ছবি ব্যবহার করা হয়েছে তিনি আসওয়াত টুরাডস নন। তিনি হলেন ইব্রাহিম হিন্দে। তার ছবি ব্যবহার করে এবং তাকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে , ” অবিশ্বাসীদের সাহায্য করা আমাদের জন্য নিষেধ।”

কিন্তু সে পোস্টের সাথে নিজের ছবি দেখে চমকে উঠেছেন ইব্রাহিম হিন্দে। প্রথমত; তিনি কানাডার টরন্টোর বাসিন্দা এবং কখনো হিউস্টনে যান নি।

দ্বিতীয়ত; যে সময় হারিকেন হার্ভে আঘাত হেনেছে, তখন তিনি তিনি হজ পালনের জন্য মক্কায় অবস্থান করছিলেন।

এ খবরটি আমেরিকার একটি ওয়েবসাইট গত ৩১শে আগস্টে প্রকাশিত হয়েছে, যারা নিজেদের রম্য ওয়েবসাইট বরে দাবী করে।

সেখানে বলা হয়েছে, রামাশান মসজিদে ৫০০ মানুষের আশ্রয় দেয়া সম্ভব হতো।

কিন্তু ইমামের নির্দেশে তাদের আশ্রয় দেয়া হয়নি। আরেকটি খবরে বলা হয়েছে, উদ্বাস্তু মানুষজন পরে জোর করে মসজিদে ঢুকে আশ্রয় নিয়েছিল।

এই খবরটি মানুষের মনে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে এবং সে ওয়েবসাইট থেকে প্রায় দেড় লাখ শেয়ার হয়েছিল।

কিন্তু সোমবার সকালে সে ওয়েবসাইটে ইব্রাহিম হান্ডের ছবি সরিয়ে সেখানে লেবাননের ইমাম আহমেদ আহমেদ-আল-আসিরের ছবি ব্যবহার করা হয়।

এ খবরটিও একটি অনলাইনে ছাপা হয়, যারা নিজেদের রম্য ওয়েবসাইট বলে দাবী করে।

মি: হিন্দে তাঁর টুইটার একাউন্টে যখন বিষয়টি তুলে ধরেন তখন সেটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। টুইটারে তাঁর সে পোস্ট দুই লাখ শেয়ার এবং সাড়ে তিন লাখ লাইক হয়।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অনেকে লিখেছেন, মসজিদ এবং ইমামের নাম মুসলিম নামের মতো নয়।

তাছাড়া ‘রামাশান মসজিদ’ নামের কোন মসজিদ ইন্টারনেটে খোঁজ করে পাওয়া যায়নি।

বর্তমানে মক্কায় অবস্থানরত মি: হিন্দে লিখেছেন, তারা হজের সময় হারিকেন হার্ভের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রার্থনা করেছেন।

হিউস্টন এলাকায় বসবাসরত মুসলমানরা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে লিখেছেন, সেখানকার মসজিদগুলোতে দুর্গত মানুষজন আশ্রয় নিয়েছিল।

অন্তত চারটি মসজিদ দুর্গত মানুষদের সার্বক্ষণিক সহায়তা করেছে। তাদের মাঝে খাবার ও পানি বিতরণ করেছে।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: