Monday, 20 November, 2017 | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
মৌলভীবাজারের ৫ আসামির রায় যেকোনো দিন  » «   নেতাকর্মীর ‘কদর’ বাড়ছে মেয়র পদপ্রার্থীর কাছে  » «   খাজাঞ্চিবাড়ি ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষিকা শম্পা চক্রবর্তীর জাল সনদ: তোলপাড়  » «   কান থেকে ডিভাইস পড়ে ধরা খেলেন শাবিতে ভর্তিচ্ছু দুই শিক্ষার্থী!  » «   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা: তদন্তের নির্দেশ আদালতের  » «   মৌলভীবাজারে অবাধে চলছে পাহাড় কাটা  » «   কিংবদন্তি নেতা দেওয়ান ফরিদ গাজী  » «   নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে:জেলা প্রশাসক  » «   আম্বরখানায় ছাত্রলীগ ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, অবরোধ  » «   সম্মানিত হয়েছে ইউনেস্কো : ড. জাফর ইকবাল  » «   সিলেট মহানগর বিএনপির আনন্দ সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   খাদিমপাড়ায় টিলাকাটার অভিযোগে একজনকে দুইলক্ষ টাকা জরিমানা  » «   জৈন্তাপুরে বেকারদের জন্য ন্যাশনাল সার্ভিস চালু  » «   এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আগুন: ২৯ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী জড়িত  » «   ওসমানী মেডিকেলের ইর্মাজেন্সী গেইটে অটোরিক্সা ভাংচুর  » «  

 

Advertisement
Advertisement

‘বিমানের টিকিট বিক্রেতারা অন্য এয়ারলাইন্স থেকে সুবিধা পায় কিনা’

দৈনিকসিলেটডেস্ক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিমানের যাত্রীরা যখন বাংলাদেশ বিমানের টিকিট কাটতে যায় তখন বলা হয়, টিকিট নেই। টিকিটের ক্রাইসিস দেখানো হলেও অনেক সময় অর্ধেক যাত্রী নিয়েই গন্তব্যস্থলে রওনা হয় বিমান। অথচ বেসরকারি বিমানে যাত্রী ভরা থাকে, এটা কেন হয়? যারা টিকিট বিক্রি করে তারা অন্য এয়ারলাইন্স থেকে সুবিধা পায় কিনা এমন প্রশ্ন রাখেন তিনি।

বাংলাদেশ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে স্বাক্ষরের জন্য ‘এয়ার সার্ভিসেস এগ্রিমেন্ট বিটুইন দ্য গভর্নমেন্ট অব দ্য পিপলস রিপাবলিক অব বাংলাদেশ অ্যান্ড দ্য গভর্নমেন্ট অব ইউনাইটেড আরব আমিরাত’ এর খসড়ার মন্ত্রিসভায় অনুমোদন দেয়ার পর অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

এ সময় বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন উপস্থিত থাকলেও এ বিষয়ে তিনি কোনো কথা বলেননি বলে জানা গেছে। মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পর একাধিক মন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে এ তথ্য জানা গেছে।

রাশেদ খান মেননের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, টিকিট বিক্রির সঙ্গে যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেন।

সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ছাড়াও এজেন্ডাভুক্ত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘দুই দেশের বিমান চলাচল নিয়ে এই চুক্তিটি পুরনো। চুক্তিটি ১৯৮৮ সালের ৩০ মার্চ থেকে চলে আসছে। সংজ্ঞা ও শর্তে কিছু পরিবর্তন এনে এটাকে (চুক্তিটি) নতুনভাবে করা হয়েছে। সময়ে সময়ে এভাবে চুক্তি সংশোধন করা হয়। চুক্তি অনুযায়ী প্রত্যেক দেশ একের অধিক বিমান সংস্থাকে ফ্লাইট পরিচালনার জন্য মনোনয়ন করতে পারবে।’

বিমানের লংরুটে যাতায়াত করেন এমন একাধিক যাত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বাংলাদেশ বিমানে টিকিট করতে গেলে অনেক সময় বলা হয়, টিকিট শেষ। পরে দেখা যায়, বাংলাদেশ বিমানের অনেক ছিট খালি যাচ্ছে। যাত্রীরা অভিযোগ করেন, বিমানের টিকিট বিক্রেতারা অন্য এয়ারলাইন্স থেকে অর্থনৈতিক সুবিধা পাওয়ার কারণেই বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স-এ সিট থাকার পরও তারা বলেন টিকিট নেই।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: