Sunday, 19 November, 2017 | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
কান থেকে ডিভাইস পড়ে ধরা খেলেন শাবিতে ভর্তিচ্ছু দুই শিক্ষার্থী!  » «   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা: তদন্তের নির্দেশ আদালতের  » «   মৌলভীবাজারে অবাধে চলছে পাহাড় কাটা  » «   কিংবদন্তি নেতা দেওয়ান ফরিদ গাজী  » «   নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে:জেলা প্রশাসক  » «   আম্বরখানায় ছাত্রলীগ ও অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, অবরোধ  » «   সম্মানিত হয়েছে ইউনেস্কো : ড. জাফর ইকবাল  » «   সিলেট মহানগর বিএনপির আনন্দ সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   খাদিমপাড়ায় টিলাকাটার অভিযোগে একজনকে দুইলক্ষ টাকা জরিমানা  » «   জৈন্তাপুরে বেকারদের জন্য ন্যাশনাল সার্ভিস চালু  » «   এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আগুন: ২৯ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী জড়িত  » «   ওসমানী মেডিকেলের ইর্মাজেন্সী গেইটে অটোরিক্সা ভাংচুর  » «   যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের ওপর হামলার ঘটনা বেড়েই চলেছে  » «   সিলেটে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ সমাবেশ  » «   সিলেটে শতকোটি টাকা ব্যয়ে ইসকন মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন  » «  

 

Advertisement
Advertisement

বিরল রোগে আক্রান্ত নবীগঞ্জের তাহমিনা বাঁচতে চায়

এমএ আহমদ আজাদ, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের পল্লীতে চোঁখের উপর বিরল রোগে আক্রান্ত ৭ বছর বয়সী শিশু কন্যা তাহমিনা আক্তারসহ ৪সন্তান নিয়ে দুর্বিষহ জীবন যাপন করছেন তার মা। দীর্ঘ ২বছর যাবত তাহমিনার পিতা রয়েছেন নিখোঁজ। বেঁচে থাকার তাগিদে শেষ পর্যন্ত ভিক্ষা বৃত্তিতে নেমেছেন তাহমিনার মা মারুফা বেগম। তাহমিনাকে সুস্থ্য জীবনে ফিরিয়ে আনতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন স্থানীয় মান্দারকান্দি গ্রামবাসীা।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,  হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়নের মান্দারকান্দি গ্রামের বাচ্চু মিয়ার মেয়ে তাহমিনা আক্তার। প্রায় ৪ বছর আগে চোখে আঘাত প্রাপ্ত হয় তাহমিনা। তখন প্রাথমিক চিকিৎসা করানো হয়েছিল। এক পর্যায়ে প্রথমে সিলেটের ওসমানি মেডিক্যালের এক চিকিৎসকের পরামর্শে অপারেশন করে চোঁখটি খুলে ফেলা হয়েছিল। এর পর থেকেই চোঁখে বিরল রোগে আক্রান্ত হয় তাহমিনা।  দিন দিন চোঁখ টিউমার আকৃতির মতো বড় হচ্ছে। এ অস্থায় তাহমিনা ঠিক মতো ঘুমাতেও পারেনা। অসহ্য যন্ত্রণায় দিন-রাত ছটফট করতে থাকে শিশুটি। ছোট শিশুর এ অবস্থায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে পরিবারটি। তাহমিনার মা মারুফা বেগম জানান, তাহমিনার পিতা বাচ্চু মিয়া দীর্ঘ ২ বছর ধরে নিখোঁজ রয়েছে। পরিবারের সাথে নেই তার কোন যোগাযোগ। তিনি বেঁচে আছেন কি না তাও জানেনা পরিবারে লোকজন। বাবার অবর্তমানে অসহায় মা মারূফা ভিক্ষা বৃত্তি করে দিনাতিপাত করছেন। ৪ সন্তানের ভরন পোষন করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। এই অসহায় তাহমিনার  চিকিৎসা করতে হলে অনেক টাকার প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এত অভাব-অনটনের মাঝে শিশু তাহমিনার চিকিৎসার ব্যয়বহুল খরচ যোগানো মা’র পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। ওসমানী মেডিক্যালের ডাক্তার ওমর ফারুক জানিয়েছেন,  এখনই এই রোগের চিকিৎসা করানো না গেলে তাহমিনাকে বাচানো সম্ভব নয় । বিরল এই রোগ থেকে মুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতার হাত বাড়ানোর জন্য অনুরোধ জানান তাহমিনার মা মারুফা বেগম ও এলাকাবাসী। তাহমিনার দাদী কনর বিবি জানান এলাকার দানশীল ও সমাজের দয়ালু ব্যক্তিরা এগিয়ে আসলে আমার নাতীনকে বাঁচানো সম্ভব। আর না হয় আমরাই খাইয়া বাছরাম না তারে  ডাক্তার দেখামু কেমনে।
এনিয়ে স্থানীয় আহমেদ আজাদ মামুন একজন এই বিরল রোগি শিশুটিকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোষ্ট করেন। পোষ্টটি প্রথমদিনেই ভাইরাল হয়েছে। অনেকেই সহযোগীতার আশ্বাস দিলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ নগদ টাকা প্রদান করেননি।
কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানান, বিরল রোগে আক্রান্ত তাহমিনাকে নিয়ে খুব অভাব অনটনে আছেন তার মা। ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ভাতা প্রদানসহ যতটুকু সম্ভব সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। এছাড়া সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি। তাহমিনার চিকিৎসার জন্য সাহায্য পাঠাতে চাইলে (বিকাশ পার্সনাল- ০১৭৩৭৪০১১০৫) এই নাম্বারে যোগাযোগ করে বিকাশে টাকা পাঠাতে পারেন।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: