Tuesday, 19 June, 2018 | ৫ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

Advertisement

সাইবার সিকিউরিটি কোর্স আসছে পিপলএনটেকে

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে : তথ্য-প্রযুক্তির উৎকর্ষ সাধনের পাশাপাশি এই প্রযুক্তির অপব্যবহার ঘটিয়ে বড় ধরনের অপরাধের মাত্রাও ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। একাউন্ট থেকে অর্থ সরিয়ে নেয়া পাশাপাশি নির্বাচনের ফলাফল চুৃরি এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী নেটওয়ার্কে জড়িয়ে পড়ার ঘটনাবলী বাড়ছে উদ্বেগজনক হারে। বস্টনভিত্তিক সিএসও (চীফ সিকিউরিটি অফিসার) ম্যাগাজিনের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সাল নাগাদ প্রতি বছর সাইবার ক্রাইমে ক্ষতির পরিমাণ ৬ ট্রিলিয়ন ডলার উঠতে পারে। গত বছর এ ধরনের ক্রাইমেরন ভিকটিম হয় ৩ ট্রিলিয়ন ডলারের সহায়-সম্পদ। এরবাইরে রয়েছে অসহায় মানুষের প্রাণহানীর ঘটনাও। আর এভাবেই প্রযুক্তির সুবাদে এগিয়ে চলা বিশ্বে টালমাটাল পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হচ্ছে সাইবার ক্রাইমে। এহেন অবস্থা থেকে পরিত্রাণে আইটি সেক্টরের কর্মীদের সতর্ক-সজাগ করতে বহুমুখী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে। তথ্য-প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণারতরাও প্রতিনিয়ত সচেষ্ট রয়েছেন ক্রাইম থেকে সকলকে রক্ষার বিভিন্ন প্রক্রিয়া অবলম্বনে। এরই আলোকে গত ২২ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি সংলগ্ন ভার্জিনিয়ায় অনুষ্ঠিত হল ‘সাইবার সিকিউরিটি সেমিনার’। নবাগত বাংলাদেশীসহ এশিয়ান ইমিগ্র্যান্টদের মধ্যে যারা উচ্চ শিক্ষিত এবং উদ্যমী, তাদের মার্কিন আইটি সেক্টরে চাকরির উপযোগী কোর্স প্রদানের মাধ্যমে সারা আমেরিকায় বিশেষভাবে পরিচিতি অর্জনকারি ‘পিপলএনটেক’ এই সেমিনারের আয়োজন করে।
কানাডা থেকে আগত প্রধান বক্তা আইটি বিশেষজ্ঞ নিজাম মাহমুদ সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ে বিস্তারিত উপস্থাপন করেন। তিনি সাইবার সিকিউরিটির গুরুত্ব বিশ্লেষণের পর জানান যে, অনতিবিলম্বে পিপলএনটেক সাইবার সিকিউরিটি কোর্স শুরু করতে যাচ্ছে। যেখানে ‘কম্প টিআইএ সাটিফিকেশন’ এর জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুতি প্রদান করা হবে।
প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল আইটি সেক্টরের সাথে তাল মিলিয়ে এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। পরিবর্তিত চাহিদার সাথে তাল মিলিয়ে চলার ক্ষেত্রে এমন একটি কোর্সের গুরুত্ব অপরিসীম বলে সকলে মতামত ব্যক্ত করেন।
এ সেমিনারে পিপলএনটেক সংশ্লিষ্ট সকল শুভানুধ্যায়িকে সাদর আমন্ত্রণ জানান সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট ফারহানা হানিফ। দুপুর বারটায় মধ্যাহ্নভোজের মাধ্যমে শুরু এ সেমিনারে অংশ নেন আইটি সেক্টরের অভিজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ। এই ইন্সটিটিউটে কোর্স নিয়ে উচ্চ বেতনে চাকরি পাওয়া কয়েকজনও ছিলেন এ সেমিনারে। তাদের সংগ্রাম এবং সাফল্যের গল্প নবাগতদের প্রেরণা যোগায়।
পিপলএনটেক এর প্রেসিডেন্ট তার বক্তব্যে সাইবার সিকিউরিটির গুরুত্ব, ভবিষ্যৎ ও চাকরিক্ষেত্রে এর ব্যাপক চাহিদার কথা উল্লেখ করেন।
প্রধান বক্তা নিজাম মাহমুদের সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ক প্রাঞ্জল বিশ্লেষণ উপস্থিত সকলের প্রশংসা কুড়ায়। বক্তব্য শেষে তিনি প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহন করেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন শাহিদা চিমা, মোহাম্মাদ আজাদ, শাহিদ চৌধুরী; যারা প্রত্যেকে পিপলএনটেক এর শিক্ষার্থী এবং বর্তমানে মার্কিন আইটি কোম্পানীতে বিজনেস এনালিস্ট, ডাটা এনালিস্ট এবং সফ্টওয়্যার টেস্টার হিসেবে কর্মরত।
সমাপনী বক্তব্যে পিপলএনটেক-এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী আবুবকর হানিফ তাঁর দীর্ঘ অভিজ্ঞতার আলোকে সাইবার সিকিউরিটির প্রতি সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, বর্তমান পৃথিবীর প্রধান এবং অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে সকলেই এ বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করা অবশ্য কর্তব্য। সাম্প্রতিক সময়ে দুর্বৃত্তরা নানাভাবে যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের কম্প্যুটার হ্যাক করে ভয়ংকর পরিস্থিতি তৈরী করে। অনেক একাউন্ট থেকে শতশত কোটি ডলারও সরিয়ে নেয় ঐ দুর্বৃত্ত চক্র। শুধু তাই নয়, গত বছরের জাতীয় নির্বাচনের ফলাফল হাইজ্যাকের জন্যে রাশিয়ার হ্যাকার দলকে অভিযুক্ত করে যুক্তরাষ্ট্র তদন্ত শুরু করেছে। সিএসও ম্যাগাজিনের সর্বশেষ জরিপের উদ্ধৃতি দিয়ে কম্প্যুটার ইঞ্জিনিয়ার হানিফ আরো বলেন, বর্তমানে বিশ্বের ৭ বিলিয়ন মানুষের ৫১% ভাগ তথা ৩.৮ বিলিয়ন মানুষই ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। ২০২২ সালের মধ্যে ব্যবহারকারির সংখ্যা ৬ বিলিয়নে উন্নীত হবে। অর্থাৎ প্রায় পুরো জনগোষ্ঠি তথ্য-প্রযুক্তির ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়বে। আর তখোনই বাড়বে ভয়ংকর বিপদের আশংকা। একারণেই সকলের কম্প্যুটার সিস্টেম নিরাপদ রাখতে সাইবার সিকিউরিটি সম্পর্কে সঠিক ধারণার অপরিহার্যতা বেড়েছে। তিনি আরও বলেন, বরাবরের মত এখনো পিপলএনটেক নতুন প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে দক্ষ আইটি জনশক্তি গড়ার কাজে নিয়োজিত রয়েছে।

 

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: