Friday, 21 September, 2018 | ৬ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

আমাদের প্রধান চ্যালেঞ্জ হচ্ছে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা : শিক্ষামন্ত্রী

আজিজ খান: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেছেন, কিছু শিক্ষকের কারণেই প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে। শিক্ষমন্ত্রী বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে আমাদের কাছে বহু পরামর্শ আসছে। এর মধ্যে পরীক্ষার আধা ঘণ্টা আগে শিক্ষার্থীরা হলে প্রবেশ করার পর প্রশ্নপত্র পাঠানোর বিষয়টিও আলোচনা হচ্ছে। তিনি বলেন, শিক্ষকই যখন প্রশ্ন ফাঁসকারী, তখন আধা ঘণ্টা আগে প্রশ্ন পাঠিয়ে কী লাভ?

তবে প্রশ্ন ফাঁস রোধের বিভিন্ন উদ্যোগ সরকার নিয়েছে। এই অবস্থায় শিক্ষকের হাতে প্রশ্ন তুলে দিয়ে রাতে ‘নিশ্চিন্তে ঘুমাতে যাওয়া উচিত’। কিন্তু সেটা হচ্ছে না, প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যাচ্ছে। কিছু শিক্ষক প্রশ্ন ফাঁস করে দিচ্ছেন। আমরা ২০১২ সালের মধ্যেই নারী পুরুষ সমতা অর্জন করেছি। বাংলাদেশ ব্যাতীত পৃথিবীর কোন দেশে এতো বই বিনামূল্যে বিতরণের নজির নেই। আওয়ামীলীগ সরকার বর্তমান মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর ৯ বছরে ২৬০ কোটির অধিক বই বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়েছে। আমাদের প্রধান চ্যালেঞ্জ হচ্ছে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা। আর সেই লক্ষ্যে পৌছাবার প্রধান নিয়ামক হচ্ছেন আমাদের শিক্ষকরা । আমাদের শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে নতুন প্রজন্মকে আধুনিক বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে গড়ে তুলা।

১৩ই জানুয়ারী শনিবার সকাল ১০ঘটিকায় সিলেট আঞ্চলিক স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, চৌধুরী বাজারে শিক্ষাক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস) গোলাপগঞ্জ উপজেলা শাখার পক্ষ থেকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমানে ১ কোটি ৬৪ লক্ষ শিক্ষার্থী বৃত্তি পায়। সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা প্রতিমাসে এমপিওভুক্তির আওতায় শিক্ষকদের বেতন হিসেবে দেওয়া হচ্ছে। আমাদের বুঝতে হবে সম্পদ কম।
বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস) গোলাপগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি মনসুর আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সচিব সুজা মোহাম্মদ জাকারিয়া, অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ বাসিত, যুগ্ম সচিব আবু জাফর মোহাম্মদ ফয়সলের যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস) গোলাপগঞ্জ উপজেলা শাখার সিনিয়ির সহসভাপতি রেজাউল আমীন, সহসভাপতি ইসমাইল উদ্দিন খান, যুগ্ম প্রচার সম্পাদক বিলাল আহমদ, যুগ্ম সচিব নুরুল ইসলাম।
এছাড়া আরোও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম, উপজেলা শিক্ষা অফিসার অভিজিৎ কুমার পাল, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্টার বদরুল ইসলাম সুহেব, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সৈয়দ মিসবাহ, আঞ্চলিক কমিশনার মুবিন আহমদ জায়গীদার, স্কাউট আঞ্চলিক উপ কমিশনার (প্রোগ্রাম) মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ, লক্ষণাবন্দ ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি নিজাম উদ্দিন প্রমুখ।

সর্বশেষ সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: