Tuesday, 20 November, 2018 | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

শিক্ষামন্ত্রীর পিও’র অসহনীয় মাত্রায় ঘুষ ভক্ষন, এবং……

শিক্ষামন্ত্রীর পিও মোতালেব হোসেন

তাইসির মাহমুদ: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ নহিসত করেছিলেন সহনীয় মাত্রায় ঘুষ খেতে । কিন্তু নিজ মন্ত্রনালয়ে তাঁর সেই মুল্যবান নসিহত উপেক্ষিত। খোদ মন্ত্রীর একান্ত কর্মকর্তা নসিহত উপেক্ষা করে ঘুষ খেয়ে বসলেন অসহনীয় মাত্রায় । ৫-১০ হাজার টাকা নয়, সাড়ে ৪ লক্ষ টাকা। বেরসিক গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেফতার করে বসলো খোদ মন্ত্রীর কর্মকর্তাকে। অবশ্য পিও মোতালেব হোসেন তা কল্পনাও করতে পারেননি। ভাবতেও পারেননি, শিক্ষা মন্ত্রনালয়ে হানা দেওয়ার সাহস করবে পুলিশ।

অবশ্য নুরুল ইসলাম নাহিদকে ধন্যবাদ জানাতেই হয়। কারণ, তিনি দেশের একজন গুরুত্বপুর্ণ মন্ত্রী । চাকরি হারনোর আশংকা ছাড়া তাঁরই পিও’কে গ্রেফতার করার সাহস করতে পেরেছে পুলিশ ।

মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, হুইপদের পিএস, এপিস, পিও’দের জন্য এটি একটি সতর্কবার্তা। শিক্ষামন্ত্রীর নসিহত পালন না করলে যেকোনো সময় ফেঁসে যেতে পারেন। কে, কোন জায়গায়, কীভাবে ঘুষ খান, এটা তাদেরই জানা আছে। কোন রাস্তা, ব্রীজ, কালভার্টের উন্নয়ন কাজ পাশ করে দেয়ার জন্য সর্বনিম্ন ৫ হাজার থেকে সর্বোচ্চ কত টাকা ঘুষ নিয়েছেন- এটা নিজে ভালো করেই জানেন । রাত পোহালে কে ঘুষ নিয়ে আসবে, কীভাবে ঘুষের টাকা সামলাবেন- জানা আছে সেই ফন্দিও।

ভাবছেন, কেউ জানবে না। নাহ, সাংবাদিকদের কাছে সকল খবরই আছে । হয়তো ভয়ে, কিংবা চক্ষু লজ্জায় রিপোর্ট হচ্ছেনা । কিন্তু যেকোনো সময় শিক্ষামন্ত্রীর পিও’র মতো ধরা খেয়ে গেলে তখন আর রক্ষা হবেনা । আমলনামা বেরিয়ে আসবে । তাই শিক্ষামন্ত্রীর নসিহতের উপর আমল করা অতীব জরুরী।
আর মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, হুইপদেরও তাঁদের একান্ত কর্মকর্তাদের সহনীয় মাত্রায় ঘুষ ভক্ষনের ব্যাপারে তদারকি করা উচিত । নতুবা ধরা পড়লে সততার ঝুলি ছিঁড়ে বিড়াল ছানারা বেরিয়ে এসে লোকালয়ে লাফালাফি-দাপাদাপি করবে।
লেখক: লন্ডন প্রবাসী সাংবাদিক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: