Friday, 21 September, 2018 | ৬ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

কানাইঘাটে পল্লীবিদ্যুতের পরিচালকে জেল হাজতে

কানাইঘাট প্রতিনিধিঃ কানাইঘাটে অবৈধ ভাবে বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার সহ খুটি সরাতে গিয়ে জনতার হাতে আটক কৃত এলাকা পরিচালক মোঃ আলমগীর কবিরকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় সিলেট পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২এর জেনারেল ম্যানেজারের নির্দেশে পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির এজিএম প্রশাসন মোঃ আব্দুল হকের নেতৃত্বে একদল উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। উল্লেখ্য রবিবার রাত ৮টায় সিলেট পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২, দরবস্ত এর আওতাধীন কানাইঘাট জোনাল অফিস সংলগ্ন মহিলা কলেজের পাশে বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার সহ একটি খুটি সম্পন্ন অবৈধ পন্থায় কয়েক জন শ্রমিক নিয়ে তিনি স্থানান্তরিত করার সময় বিদ্যুতের খুটির উপর থাকা ট্রান্সফরমারটির মেইন লাইন ও জাম্পার কেটে তিনি মাটিতে নামিয়ে ফেলেন।

যার কারনে পৌরসভার কয়েকটি গ্রামের বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন হয়ে পড়ে। এতে বেশ কিছু সময় বিদ্যুৎ বন্ধ থাকায় এলাকার মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। এক পর্যায় স্থানীয় জনতা বিদ্যুৎ বিছিন্ন করে রাতের আধারে অবৈধ ভাবে ট্রান্সফরমার সহ খুটি সরানোর সংবাদ পেয়ে এলাকার শতাধিক মানুষ পরিচালক আলমগীর কবিরকে আটক করে কানাইঘাট পল্লীবিদ্যুৎ জোনাল অফিসের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, পরিচালক আলমগীর কবির অফিসকে অবগত না করে নিজ স্বার্থে একক সিন্ধান্তে খুটি সরানোর কাজ শুরু করেছেন। এতে এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে আলমগীর কবিরকে আটক করে রাখেন। এমন সংবাদ পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আলমগীর কবিরকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।

এ ঘটনার দায়ে সিলেট পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২ এর এজিএম (প্রশাসন) মোঃ আব্দুল হক, ৫নং এলাকার পরিচালক মোঃ আলমগীর কবীর ও তার সহযোগী ৬ জনকে আসামী করে রবিবার রাতে কানাইঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন। থানার মামলা নং ০৯ তাং ১২/০৩/১৮ইং। এ সময় উপস্থিত অর্ধশতাধিক জনতা জানান বড় অংকের টাকার বিনিময় একটি পার্টির সাথে পরিচালক আলমগীর কবির চুক্তি করে ট্রান্সফরমার সহ খুটিটি স্থানান্তরিত করতে চেয়েছিলেন। এতে পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের ২/৩ জন কর্মচারী এ কাজের সাথে জড়িত রয়েছেন বলেও তারা দাবী করেছেন। তারা অভিযোগ করে বলেন তিনি দীর্ঘ কয়েক বছর থেকে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২এর ৫নং এলাকার পরিচালকের দায়িত্ব নিয়ে নেন। তারা জানায় এর পুর্বেও তার পরিবারের লোকজন বিনা নির্বাচনে ঐ পদে থাকায় আলমগীর কবির পল্লীবিদ্যুতের সকল বিভাগে র্দুনীতি করে আসছে। গ্রাহকের মিটার থেকে শুরু করে বিদ্যুতের প্রতিটি কাজে তার অবৈধ হাত রয়েছে। তাদের দাবী অবৈধ দুর্নীতি বাজদের সরিয়ে প্রকাশ্যে গণতান্ত্রিক উপায়ে সিলেট পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২এর ৫নং এলাকার পরিচালক নির্বাচিত করা হউক। এখানকার স্থানীয় জনতা জানান মোঃ আলমগীর কবির পল্লীবিদ্যুতের পরিচালকের নাম ভাঙ্গিয়ে তিনি লক্ষ লক্ষ টাকার দুর্নীতি করে যাচ্ছেন। এসব দুর্নীতি আড়াল করতে গত কয়েক মাস পূর্বে তিনি নিজে আত্মগোপন করে গুম হওয়ার নাটক সাজিয়েছিলেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন কালে এজিএম প্রশাসন মোঃ আব্দুল হক স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান এরিয়া পরিচালক সম্পুর্ণ নিয়ম বর্হিভূত কাজ করেছেন যা পল্লীবিদ্যুৎ আইনে দন্ডনীয় অপরাদ মন্তব্য করে বলেন এ অবৈধ কাজে পরিচালকের ব্যাক্তি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট রয়েছে। এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ নুনু মিয়া জানান নিয়মতান্ত্রিক ভাবে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে এবং তাকে আদালতে প্রেরণও করা হয়েছে।

 

সর্বশেষ সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: