Wednesday, 26 September, 2018 | ১১ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

বিউটিফুল বাংলাদেশে একজন ‘অবাঞ্ছিত’ বিউটি

অনুপম মাহমুদ: অন্ধকার যুগে কন্যা সন্তান হলে জীবন্ত মাটি চাঁপা দেয়া হতো। ভারতীয় উপমহাদেশে সতীদাহ প্রথা ছিলো, এখনো পরিবারের সম্মানের জন্য করা হয় ‘অনার কিলিং’।

যখন পর্যটন করপোরেশন বাংলাদেশ এর ব্র্যান্ডিং এর জন্য বেছে নিয়েছে “Beautiful Bangladesh” শ্লোগান, তখন হবিগঞ্জের হাওরের এক নিভৃত পল্লীতে সবুজ জমিনে রক্তলাল বিউটির ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ আমাদের লজ্জিত করেছে।

আমরা আরো লজ্জিত হয়েছি, যখন জানতে পেরেছি এই কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েও বিচার পায়নি। বিচার না পাওয়ার এই দেশে বিউটির বাবা ছায়েদ আলী ভেবেছেন এই সুযোগে বাড়তি কিছু পেলে মন্দ হয় না।

ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত আসনের সদস্য কলমচান বিবির ছেলে বাবুল মিয়া বিউটিকে বিয়ের কথা বলে অপহরণ করে আটকে রেখে ধর্ষণ করেছে এই অভিযোগে মামলা চলমান। বিউটি আদালতে বলেছিল, বিয়ে করলে মামলা প্রত্যাহার করা হবে, কিন্তু বাবুল বিয়ে করতে রাজি হয়নি।

বাবুলের মায়ের কাছে নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর স্বামী ময়না মিয়া বিউটির বাবাকে প্রস্তাব দেন বাবুল ও তার মা কে ফাঁসিয়ে শিক্ষা দেয়ার জন্য প্রয়োজন একটি লাশ! আর সেই লাশ হলো দেশব্যাপী আলোচিত বিউটি।

উল্লেখিত সকল তথ্য আমরা জানতে পেরেছি পুলিশের বরাত দিয়ে। আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন বাবুল, সায়েদ আলী, ময়না মিয়া। পুলিশ বলছে ধর্ষণ করেছে বাবুল, হত্যা করেছে ময়না বিউটির বাবার সহায়তায়।

বিউটি ধর্ষণ ও হত্যা; এক জটিল সমীকরণ

বাবার সম্মতিতে বিউটিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মৃত্যুর সময় বিউটি কি ভেবেছিল, গোটা দেশ তাকে এক নামে জানবে? হাওর অঞ্চল এমনিতেই অনগ্রসর, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ এমন কি প্রযুক্তি পরিসেবা এখানে অপ্রতুল। এমন একটি জনপদে এই বর্বর পরিকল্পনায় লজ্জিত পিতৃকুল।

অনেকেই মজা করে বলেন, রাজনীতির মধ্যে পলিটিক্স ঢুকে গেছে! ভিলেজ পলিটিক্স নিয়ে নানান মতবাদ রয়েছে, যার সিংভাগ নেতিবাচক। যেখানে ব্যক্তি ও গোষ্টী কেন্দ্রিক শক্তির প্রদর্শন হয়, এখানে বরাবরই অনুপস্থিত থাকে নীতি।

নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার অন্যতম একটি দিক হচ্ছে এটা জামিন অযোগ্য অপরাধ। আর তাই গ্রাম্য রাজনীতিতে প্রতিপক্ষ্যকে ঘায়েল কিংবা শায়েস্তা করার জন্য এটা একটা শক্তিশালী হাতিয়ার হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি একটি গবেষনায় উঠে এসেছে প্রায় ৯৭% নারী নির্যাতনের মামলায় সাজা হয় না। এই নোংরা সংস্কৃতির নির্মম দৃষ্টান্ত আজ বিউটি।

চাইলেই বাবা হওয়া যায়? বাবা হওয়ার জন্য প্রয়োজন হয় না কোন লাইসেন্স কিংবা নিবন্ধন। একদিন হয়তো এমন বাবাদের জন্যই একটা মানদণ্ড নির্ধারণ করার প্রয়োজন হয়ে উঠবে। বাবার কাছে কন্যা নিগৃহীত হচ্ছে, খুন হচ্ছে- এইসব ঘটনা আমাদের লজ্জিত করে, কন্যার কাছে বাবারা অনিরাপদ, এটা ভাবা যায়? বাবা হওয়ার নৈতিক যোগ্যতাটা জরুরি।

Beautiful Bangladesh এর অকাল প্রয়াত বিউটি ফুল হয়ে ফুটতে পারেনি, এই লজ্জা আমাদের সবার।

লেখক: অধিকার কর্মী




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: