Monday, 15 October, 2018 | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

রাজধানীতে সড়কে গাড়ির পাশে নৌকা চলছে

দৈনিকসিলেটডেস্ক:রাজধানীতে বৃষ্টি ঝড়েছে সকালে, কিন্তু এখনও সড়কে রয়ে গেছে জলাবদ্ধতা। কোথাও কোথাও রয়েছে হাঁটু পানি। আর সেই হাঁটু পানিতে ৫০ টাকার বিনিময়ে ‘নৌ-ভ্রমণে’র সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে রাজধানীর কাজীপাড়ায়। তবে এ নৌ-ভ্রমণ শখের বসে নয়। জলাবদ্ধতার কবলে পড়া নগরবাসীর পানি পারাপারের জন্য এই ব্যবস্থা।

কাজীপাড়া থেকে ১০ নম্বর গোল চত্বরের আগ পর্যন্ত পুরো রাস্তা জুড়েই হাঁটু পানি, কোথাও আবার রয়েছে কোমড় পানিও। অতিরিক্ত জলাবদ্ধতার কারণে একটি বাসের ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কাজীপাড়ার পেছন থেকে শেওড়াপাড়া পর্যন্ত বাসগুলো স্থির দাঁড়িয়ে রয়েছে। আর কাজীপাড়া থেকে ১০ নম্বর পর্যন্ত পুরো জলাবদ্ধ রাস্তায় মানুষ হাটু পানি মাড়িয়ে চলাচল করছে, এছাড়া ২০ টাকার বিনিময়ে রিকশা বা ভ্যানে ১০ নম্বর পর্যন্ত পার করে দিচ্ছে।

অন্য যাত্রীর সঙ্গে রিকশা বা ভ্যানে করে জলবদ্ধ রাস্তা পার হওয়ার জন্য অপেক্ষায় এ প্রতিবেদক। এমন সময় দেখা গেলো দূর থেকে একটি নৌকা যাত্রী নিয়ে এগিয়ে আসছে। যাত্রীদের নিয়ে ১০ নম্বরের দিকে যাবে নৌকাটি। সব মানুষের দৃষ্টি তখন নৌকাটির দিকে।

অনেকটা আগ্রহ নিয়ে এগিয়ে গিয়ে নৌকা চালকের (মাঝি) সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘সকাল থেকেই জলাবদ্ধতার কারণে মানুষকে পারাপারের জন্য রাস্তায় নৌকা নামাইছি।

এই জলাবদ্ধ রাস্তা পারাপার করানোর জন্য রিকশা-ভ্যান অনেক আছে, তাদের ভাড়া ২০/৩০ টাকা। আমার নৌকায় জনপ্রতি ভাড়া ৫০ টাকা তবুও মানুষ শখ করে আমার নৌকাতেই পারাপার হচ্ছে।’

নাম জানতে চাইলে তিনি তা এড়িয়ে গিয়ে জানান, এই এলাকার মনিপুরে তার বাসা। পেশায় ব্যবসায়ী হলেও আজ শখ করে জলাবদ্ধ এই রাস্তায় নৌকা নামিয়েছেন। এটা তার নিজের নৌকা। তবে এ নিয়ে মোট তিনবার এই রাস্তায় যাত্রী পারাপারের জন্য নৌকা নামালেন তিনি।

এদিকে পুরো এলাকা জলাবদ্ধ হয়ে থাকা বিষয়ে কাজীপাড়ার বাসিন্দা মকবুল হোসেন বলেন, কী আর বলবো, একটু বৃষ্টি হলেই কাজীপাড়া তলিয়ে যায়। আজ আরও বেশি খারাপ অবস্থা। সকাল থেকে মানুষ কর্মক্ষেত্রে যাবার জন্য বের হলেও জলাবদ্ধতার কারণে যেতে পারছে না। আমি নিজেও বাধ্য হয়ে নৌকায় পার হলাম ৫০ টাকা দিয়ে। কিন্তু এখন আর যাওয়ার জন্য বাস পাচ্ছি না, জলবদ্ধতার কারণে সব বাস আটকে আছে।

এদিকে সিটি কর্পোরেশনের আঞ্চলিক অফিসের কর্মচারীসহ অন্যান্যরা মিলে সব ম্যানহলের ঢাকনা খুলে জলাবদ্ধতা নিরসনের কাজ করছেন। এই কাজে অংশ নেয়া হায়দার হোসেন বলেন, বেশি বৃষ্টির কারণে এই জলাবদ্ধতা। এটা নিরসনের লক্ষ্যে আমাদের লোকজন কাজ শুরু করেছে। আশা করা যায় কিছু সময়ের মধ্যেই পানি নেমে যাবে।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঝড়ো হাওয়াসহ মুষলধারে বৃষ্টিপাত হয়েছে। সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত মাত্র তিন ঘণ্টায় কেবল ঢাকাতেই ৮১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৩ মে দেড় ঘণ্টায় ঢাকায় ৪৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। আবহাওয়া অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, আজ চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়া ও বজ্রপাতসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। সৌজন্যে : জাগো নিউজ




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: