Sunday, 19 August, 2018 | ৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

Advertisement

প্রথম ম্যাচেই খেলতে প্রস্তুত সালাহ!

দৈনিকসিলেটডেস্ক: ২৬ মে থেকে ১০ জুন। মাঝের এই ১৫টি দিন কি দুঃসহনীয় শঙ্কার মধ্যদিয়েই না কাটাতে হয়েছে মিশরীয়দের! যাকে ঘিরে বিশ্বকাপ স্বপ্নের ডালি সাজাচ্ছিল মিশরীয়রা, সেই মোহামেদ সালাহ’রই বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে দেখা দিয়েছিল বড় এক সংশয়। মিশরীদের বিশ্বকাপ স্বপ্নের আকাশে শঙ্কার কালো মেঘ’টা জমিয়ে দিয়েছিলেন সার্জিও রামোস। গত ২মে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে সালাহকে ফাউল করেন রামোস। মাটিতে পড়ে গিয়ে বাঁ-কাঁধে চোট পান সালাহ। এরপর থেকেই মিশরীয়দের অস্থির করে তুলেছিল একটা শঙ্কা-মিশ্রিত প্রশ্ন, সালাহ বিশ্বকাপে খেলতে পারবেন তো?

মিশরীয়দের মন থেকে সেই শঙ্কার কালো মেঘ অবশেষে সরে গেছে। সরিয়ে দিলেন সালাহ নিজেই। লিভারপুলের ২৫ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড নিজেই বললেন, তিনি ফিট। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই খেলতে পারবেন বলে আশাবাদী তিনি।

এখনো অবশ্য একশভাগ ফিট নন। তবে বিশ্বকাপে মিশরের প্রথম ম্যাচ ১৫ জুন, দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ের বিপক্ষে। মানে হাতে আরও ৫টা দিন সময় আছে। সামনের এই কদিন কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজেকে পুরোপুরি ফিট করে তোলার প্রত্যয়ই ঘোষণা করেছেন সালাহ। তার স্বকণ্ঠের এই ঘোষণা নিশ্চিতভাবেই মিশরীয়দের মনে চেপে বসা শঙ্কার কালো পাথরটি সরিয়ে হালকা করে দিয়েছে। হাফ ছেড়ে ফেলতে পারছেন স্বস্তির নিঃম্বাস!

শুধু মিশরীয়রা নয়, সালাহ’র এই কথায় স্বস্তি পেয়েছেন বিশ্ব ফুটবলপ্রেমীরাও। সদ্য শেষ হওয়া ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের মৌসুমে নিশ্চিতভাবেই বিশ্বের সেরা তিনজনের একজন ছিলেন সালাহ। লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে পাল্লা দিয়েই পারফর্ম করেছেন লিভারপুলের মিশরীয় তারকা। সেই সালাহ বিশ্বকাপে খেলতে না পারলে সেটা নিশ্চিতভাবেই খাঁটি ফুটবলপ্রেমীদের জন্য আফসোসের কারণ হতো।

কিন্তু সালাহ সবাইকে আশ্বস্ত করলেন এভাবে, ‘আমি এখন খুবই ভলো বোধ করছি। আশা করি উরুগুয়ের বিপক্ষে খেলার জন্যই তৈরি হতো পারব। আমি কোনোভাবেই আমাদের স্বপ্নটা ভেঙে যেতে দেব না। আমি আপনাকে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, বিশ্বকাপে খেলার জন্য তৈরি হতে এবং মিশরের মানুষের স্বপ্ন পূরণ করতে সর্বোচ্চ চেষ্টাই করব আমি। প্রতিজ্ঞা করছি, আমাদের দেশবাসীর সম্মানের জন্য সবকিছুই করব আমি।’

শুধু নিজে খেলতে পারার আশাবাদ ব্যক্ত করা নয়। রাশিয়া বিশ্বকাপে মিশর ইতিহাস গড়তে পারবে বলেও আত্মবিশ্বাসী সালাহ। মিশর সর্বপ্রথম বিশ্বকাপে খেলে সেই ১৯৩৪ বিশ্বকাপে। এরপর দীর্ঘ ৫৬ বছরের অপেক্ষার শেষে আবার ১৯৯০ বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয় মিশর। সেই শেষ। দীর্ঘ ২৮ বছরের অপেক্ষার পর এবার আবার জায়গা করে নিয়েছে বিশ্বকাপে। এবং সেটা সালাহ জাদুতেই।

এই সালাহকে কেন্দ্র করেই মিশরীয়রা দেখছেন বিশ্বকাপেও দারুণ কিছু করার স্বপ্ন। আগের খেলা দুটি বিশ্বকাপেই গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে মিশর। এবার গ্রুপপর্বের বেড়া ডিঙিয়ে অন্তত দ্বিতীয় রাউন্ডে পা রাখার স্বপ্ন মিশরীয়দের।

নিজেকে ফিট ঘোষণার স্বস্তি দেওয়ার পাশাপাশি সালাহ দেশবাসীর সেই স্বপ্নটা রাঙিয়ে দিলেন, ‘আমরা ২৮ বছর অপেক্ষার বিশ্বকাপে উঠেছি। এটা মোটেও সাদারণ ব্যাপার ছিল না। আফ্রিকান নেশন্স কাপে আমরা ৭ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছি। কিন্তু বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারছিলাম না। অবশেষে আমরা তা পেরেছি। সাফল্যের এই ধারাটা ধরে রেখে আমরা বিশ্বকাপেও ইতিহাস গড়তে চাই। ভিন্ন কিছু অর্জন করতে চাই। যা আগে কখনো অর্জন করতে পারিনি।’
দেশসেরা খেলোয়াড় সালাহ’র এমন প্রতিশ্রুতি পেয়ে মিশরীয়দের স্বডপ্নরাজ্য আরও বিস্তৃত হওয়ারই কথা।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: