Monday, 16 July, 2018 | ১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

Advertisement

নাটকীয় উপায়ে উদ্ধার ৬ কিশোর

দৈনিকসিলেটডেস্ক: থাইল্যান্ডের জলমগ্ন গুহায় আটকা ১২ কিশোর ফুটবলার ও কোচকে উদ্ধারে শুরু হওয়া নাটকীয় অভিযানের প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় মোট ছয় কিশোরকে বাইরে নিয়ে আসা হয়েছে।
রোববার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় ১৩ বিদেশি ডুবুরি ও থাইল্যান্ডের নৌবাহিনীর অভিজাত শাখা থাই নেভি সিলের পাঁচ সদস্য এই উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ৩৭ মিনিটে প্রথম, ৫টা ৫০ মিনিটে দ্বিতীয় এবং এর ১৬ মিনিট পর তৃতীয় কিশোরকে গুহার ভেতর থেকে বাইরে নিয়ে আসা হয়।

এর কিছুক্ষণ পর আরো তিন কিশোরকে উদ্ধার করা হয়। দেশটির উত্তরাঞ্চলের থ্যাম লুয়াং গুহা থেকে উদ্ধারের পর প্রাথমিকভাবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন চিকিৎসকরা। পরে দ্রুত সেখান থেকে হেলিকপ্টারযোগে মং জেলার চিয়াংরাই প্রাচ্যানুকরোহ হাসপাতালে নেয়া হয়।

উদ্ধারকারী দলের জ্যেষ্ঠ এক সদস্য বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, ‘গুহার ভেতর থেকে ছয় কিশোরকে বের করে নিয়ে আসা হয়েছে বলে আমি তথ্য পেয়েছি।’ প্রথম দফায় তিনজনকে উদ্ধারের খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন উদ্ধার মিশনের কর্মকর্তা লে. জেনারেল কংচিপ ট্যানট্রাওয়ানিত। তিনি বলেছেন, দুর্বল কিশোরদের প্রথম দফায় উদ্ধার করা হয়েছে।

বিবিসির ড্যান জনসন বলেছেন, গুহা এলাকা থেকে প্রায় এ ঘণ্টার পথ জেলার প্রধান হাসপাতাল। কিশোরদের পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে অপেক্ষা করছেন। গুহায় ১৮ সদস্যের উদ্ধারকারী দলে থাকা চিকিৎসকরা শিশুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর প্রথম কাকে বের করে আনা হবে সেটি নির্ধারণ করেন।

এদিকে, কিশোরদের উদ্ধারের পর উদ্ধারকারী দলের সদস্যদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। অনেকেই উদ্ধারকারী দলের সদস্যদের বীরের খেতাবে ভূষিত করে টুইট করেছেন।

চিয়াং রাই প্রদেশের গুহা থেকে কিশোরদের উদ্ধারের পর হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার নাটকীয় দৃশ্যের ছবি ও ভিডিও সামাজিকযোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেছেন অনেকেই। এতে দেখা যায়, অ্যাম্বুলেন্স এবং হেলিকপ্টারে করে কিশোরদের মং জেলার চিয়াংরাই প্রাচ্যানুকরোহ হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে। উদ্ধারকারীরা রাতেও অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।

উদ্ধার মিশনের যৌথ কমান্ড সেন্টারের প্রধান ন্যারংস্যাক ওসোত্তানাকর্ন বলেছেন, ‘থাই নেভি সিলের পাঁচস সদস্যসহ বিদেশি ১৩ ডুবুরি সকাল ১০টায় গুহায় প্রবেশ করেছেন। এর মধ্যে ১০জন চেম্বার-৯ (যেখানে কিশোররা আটকা আছেন) ও মাঝপথে ঝুঁকিপূর্ণ স্থান হিসেবে চিহ্নিত চেম্বার-৬ এর উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন। অন্য তিন ডুবুরি অভিযানে যোগ দিয়েছেন স্থানীয় সময় দুপুর ২টায়।

এছাড়াও থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, চীন এবং ইউরোপ থেকে অংশ নেয়া ডুবুরিদের অপর একটি দল গুহার প্রবেশপথ চেম্বার-৩ এ অবস্থান করছেন। চেম্বার-২ এবং চেম্বার-৩ এর মাঝে সংকীর্ণ ও উঁচু-নিচু জলমগ্ন পথে রশি বসিয়ে সহায়তা করছে এই দল। দীর্ঘ প্রায় ৪ কিলোমিটার সংকীর্ণ ও উঁচু-নিচু জলমগ্ন পথ পাড়ি দিয়ে এই কিশোররা শেষ পর্যন্ত বের হয়ে আসতে পারবে কি-না সেটি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন আন্তর্জাতিক গুহা বিশেষজ্ঞরা।

গুহায় আটকা বাকি ৬ কিশোর ও তাদের কোচকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করতে আরো ১০ ঘণ্টার প্রস্তুতি দরকার বলে জানিয়েছেন ন্যারংস্যাক ওসোত্তানাকর্ন। তিনি বলেছেন, আগামী ১০ থেকে ১২ ঘণ্টার মধ্যে পুনরায় অভিযান শুরু করা হবে। ৫০ বিদেশি ও ৪০ থাই ডুবুরি এই উদ্ধার অভিযানে নিয়োজিত আছেন।

সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স, ব্যাংকক পোস্ট, দ্য গার্ডিয়ান।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: