Tuesday, 16 October, 2018 | ১ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে স্মারকলিপি

দৈনিকসিলেটডটকম:সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিরুদ্ধে মদন মোহন কলেজের দু’শিক্ষকের জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ষড়ষন্ত্র করে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত করার প্রতিবাদে স্মারকলিপি দিয়েছে এস.আই.ইউ’র শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। আজ ০৫/০৮/২০১৮ইং রোজ রবিবার সকালে মদনমোহন কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বরাবর এক স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। মদনমোহন কলেজের অধ্যক্ষ ও পরিচালনা পর্ষদের সচিব অধ্যাপক ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ এ স্মারকলিপি গ্রহন করেন।
স্মারকলিপিতে এস.আই.ইউ শিক্ষক, কর্মকর্তাবৃন্দ বলেন “সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি” বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আইন ১৯৯২ (সংশোধিত ১৯৯৮) এর আওতায় সিলেটের স্বনামধন্য শিক্ষানুরাগী পরিবারের (গুলশান পরিবার) সদস্য জনাব কুতুব উদ্দিন আহমদ (প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান) এঁর আবেদনের প্রেক্ষিতে বিশিষ্ঠ শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. ছদরুদ্দিন আহমদ চৌধুরী কে উপাচার্য নিয়োগ করে গুলশান পরিবারের সদস্যদের দ্বারা গঠিত ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের স্মারক নং- শিম/শাঃ১৪/৮ বেঃবিঃ-১১/২০০১/৫৯৬ তাং- ২৫/১১/২০০১ ইং এর পত্রের নির্দেশ অনুযায়ী তাঁহাদের পারিবারিক সম্পত্তির উপর ২০০১ সালের শেষার্ধে প্রতিষ্ঠিত হয় । বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর থেকে ব্যাপক সুনামের সাথে দেশের অন্যান্য বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় নামমাত্র খরচে উচ্চ শিক্ষা প্রদান করে আসছে। ২০০৯ সালে কুতুব উদ্দিন আহমদ বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ হয়ে পড়লে গুলশান পরিবারের সদস্য, জনাব মঈন উদ্দিন আহমদ (প্রতিষ্ঠাতা, মঈন উদ্দিন আদর্শ মহিলা কলেজ, সিলেট) এর একমাত্র পুত্র বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী জনাব শামীম আহমদ গুলশান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান স্থলাভিষিক্ত হন।
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আইন-১৯৯২ (সংশোধিত -১৯৯৮) এর বিলুপ্তি ঘটিয়ে সম্পূর্ণ নতুনভাবে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০১০ প্রণয়ন করিলে সেই মর্মে প্রতিটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার নিমিত্তে একটি বোর্ড অব ট্রাস্টিজ গঠনের বাধ্যবাধকতার শর্ত আরোপ করে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন বিভিন্ন পত্রের মাধ্যমে জনাব শামীম আহমদ, চেয়ারম্যান, “গুলশান ফাউন্ডেশন” গুলশান গার্ডেন, তালতলা, সিলেট-৩১০০ কে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ট্রাস্ট গঠন ও প্রতিষ্ঠার আদেশ ও নির্দেশ প্রদান করিলে সেই মর্মে উক্তরূপ ট্রাস্ট গঠন ও প্রতিষ্ঠার কাজে নিয়োজিত থাকাকালীন একটি বিশেষ সুবিধাবাদী মহল ও মদনমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, সিলেট এর ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক মোঃ মঞ্জুর হোসেন , পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষক মোঃ আকবর হোসেন ও এ্যাডভোকেট চৌধুরী আতাউর রহমান আজাদ সহ তাহাদের অপকর্মের সহযোগীবৃন্দ অত্র প্রতিষ্ঠানের স্থাপন, প্রতিষ্ঠা, নিয়ন্ত্রণ, ব্যবস্থাপনা ও তত্ত্বাবধান সংক্রান্ত কার্যের কোন কিছুতে কোন ভাবেই জড়িত থাকার অস্তিত্ব না থাকলেও সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও প্রতারনামূলকভাবে জাল-জালিয়াতি ও যোগাযোগী পন্থায় সম্পাদিত “সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ট্রাস্ট” দলিল সম্পাদন করে। গুলশান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও বর্তমান বোর্ড অব ট্রাস্টীজ, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ট্রাস্ট এর চেয়ারপার্সন জনাব শামীম আহমদ উপরে বর্ণিত জালিয়াতির মাধ্যমে সৃষ্ট এবং পরবর্তীতে যাহা যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাতিলকৃত ট্রাস্ট দলিলের বৈধতা নাই মর্মে বিগত ০৭/০৫/২০১৩ ইং তারিখে পত্র সূত্র নং- এস.আই.ইউ/৭/২০১৩/৭০৬ পত্র মারফত সচিব, শিক্ষা মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এবং চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনকে বিষয়টি অবহিত করিলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় উক্ত ট্রাস্ট অবৈধ ও বে-আইনী ভাবে গঠিত মর্মে পত্র প্রদান করে এবং একই সঙ্গে অবৈধ ও বে-আইনী ভাবে গঠিত ট্রাস্ট দলিলটির সাথে সম্পৃক্ত জনাব মোঃ মঞ্জুর হোসেন, জনাব মোঃ আকবর হোসেন, এ্যাডভোকেট চৌধুরী আতাউর রহমান আজাদ সহ তাদের অপকর্মের সহযোগিদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা দায়েরের সুপারিশ করে যাহার স্মারক নং- শিম/শাঃ১৭/০৮ বেঃবিঃ১১/২০০১/১১৪৭, তাং- ১৭/১২/২০১৩ ইং। যার প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফৌজদারী মামলা নং-৩০০/২০১৪ তাং ৩০/০৯/২০১৪, থানা- কোতোয়ালী, সিলেট দায়ের করেন। উক্ত কুচক্রী মহল বিভিন্ন সময় ভুয়া দানপত্র দলিল সৃষ্টি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম ও রাষ্ট্রপতি কর্তৃক উপাচার্য নিয়োগ প্রক্রিয়ায় বাধা দানের চেষ্ঠায় লিপ্ত রয়েছে। শিক্ষকতা একটি মহান পেশা। কোন প্রতিষ্ঠানের সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দের জাল জালিয়াতির সাথে সম্পৃক্ততার বিষয়টি অতীব দু:খজনক এবং যা শিক্ষকতা চেতনার পরিপন্থী।
এসময় তারা মদনমোহন কলেজের জালিয়াত শিক্ষক মো: মঞ্জুর হোসেন, আকবর হোসেন চৌধুরী এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে অনুরোধ জানান।




© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: