Friday, 14 December, 2018 | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

বাকপ্রতিবন্ধি তরুণীকে গণধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

দৈনিকসিলেটডেস্ক:হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সুলতানশী গ্রামে (১৪) বছরের এক বাকপ্রতিবন্ধি তরুণীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই পক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায় বিষয়টি দামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালিয়েছে। তরুণীর অবস্থা আশংকা জনক হওয়ায় কোন উপায় না পেয়ে অবশেষে তাকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শুধু তাই নয় ওই শিশুকে হাসপাতাল থেকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে ধর্ষণকারীদের লোকজন। ওই শিশুর পিতা রিক্সা চালক সমুজ আলী জানান, আজ থেকে প্রায় ১৫ দিন আগে রাত ৮টার দিকে তার বাকপ্রতিবন্ধি মেয়েকে একই গ্রামের আঙ্গুর মিয়া মাস্টারের পুত্র সুমন মিয়া (২০), কাজল মিয়ার পুত্র শাওন মিয়া (২১) ও ফরিদ মিয়ার পুত্র সোহাগ মিয়া (১৯) মিলে শাওনের ঘরে নিয়ে গণধর্ষণ করে।পরে রক্তাক্ত অবস্থায় সে এই ঘটনা তার বোন নাজমিনকে জানায়। নাজমিন তার পিতামাতাকে বিষয়টি জানালে ওই তিন ধর্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় গ্রামের মাতব্বর দেরকে দিয়ে দামাপাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালায় এবং পল্লী চিকিৎসক দিয়ে তার চিকিৎসা করায়। কিন্তু মেয়েটির অবস্থা দিন দিন অবনতি হয়। গতকাল বুধবার বিকেলে ৫টার দিকে তাকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এদিকে, ওই মেয়েটি ভর্তি হওয়ার কারণে এলাকায় জানাজানি হবে বলে একই গ্রামের কয়েকজন যুবক যুবক তাকে জোর পূর্বক হাসপাতাল থেকে উঠিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। পরে আশে পাশের লোকজন এগিয়ে এসে বাধা দিলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মেহিদী হাসান সোহাগ জানান, জরুরি বিভাগের খাতায় ধর্ষণ হয়েছে মর্মে ভর্তি হয়েছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। মেয়েটির অবস্থা আশংকাজনক। তাকে সিলেট রেফার করা হয়েছে। তবে অর্থের অভাবে যেতে পারছেন না।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: