Thursday, 15 November, 2018 | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যা বললেন নওয়াজ শরিফ

দৈনিকসিলেটডেস্ক:পাকিস্তানের রাজনীতিবিদ, বুদ্ধিজীবী ও (অবসরপ্রাপ্ত) সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তাদের বেশিরভাগই বাংলাদেশের স্বাধীনতা প্রসঙ্গে ভিত্তিহীন অসত্য মন্তব্যের জন্য পরিচিত। তবে বাস্তবতার কষ্টিপাথরে ঘষা খেয়ে তাদের অনেকেই পূর্বের অবস্থান থেকে সরে আসছেন বলে মনে হচ্ছে। এই ধারায় সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুর প্রশংসা করতেও দেখা গেছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে। এছাড়া একাত্তরে মানবতার বিরুদ্ধে করা অপরাধের জন্য পাকিস্তানের সেনা কর্মকর্তাদের বিচার করা প্রয়োজন ছিল বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ বছরের জানুয়ারি মাসে পাঞ্জাব হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ জানান, তিনি মনে করেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের নেতা শেখ মুজিবর রহমান বিদ্রোহী নেতা ছিলেন না। বরং পূর্ব পাকিস্তানের অধিকার আদায়ে সোচ্চার কণ্ঠ ছিলেন। মূলত পূর্ব পাকিস্তানের প্রতি তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানের বৈষম্যমূলক নীতির কারণেই স্বাধীনতার পথে এগোতে বাধ্য হয়েছেন বঙ্গবন্ধু।

তিনি বলেন, পূর্ব পাকিস্তানের মানুষের দাবিকে সামরিক সরকার উপেক্ষা করার কারণেই ১৯৭১ সালে ভেঙ্গে গেছে পাকিস্তান।

নওয়াজ বলেন, ১৯৪৭ সালে পাকিস্তান গঠনে বাঙ্গালিদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। কিন্তু পাকিস্তানের শুরু থেকেই তারা বঞ্চিত। মূলত সেনা সরকারের শাসনামলে বঞ্চনার কারণে স্বাধীনতার পথে ধাবিত হয় পূর্ব পাকিস্তান। এমনকি মুসলিম লিগ নামক দলটির জন্মও ঢাকায়। তবে বৈষম্যমূলক নীতির কারণে স্বাধীনতা সংগ্রাম ছাড়া কোনো বিকল্প ছিল না শেখ মুজিবুর রহমানের সামনে। এ কারণে তাকে বিদ্রোহী নেতা বলা ঠিক নয় বলেও মন্তব্য করেন নওয়াজ। কারণ তিনি যা করেছেন, তা তার জনগণের স্বার্থেই করেছেন।

একাত্তরের পর হামদুর রহমান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন না হওয়া পাকিস্তানের রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণ বলে মন্তব্য করেন নওয়াজ শরিফ। একাত্তরে সেনা কর্মকর্তাদের বিচার হলে আজ এমন দিন দেখতে হত না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

হামদুর রহমান কমিশনের রিপোর্ট পাকিস্তানের কোনো সরকারই বাস্তবায়ন করেনি। এমনকি সে রিপোর্ট কেউ পড়েও দেখেনি বলে জানান নওয়াজ। যদিও পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ নিজেও এসব ব্যাপারে কোনো উদ্যোগ নেননি।

প্রসঙ্গত, পানামা পেপার্স কেলেংকারীতে গত বছরের জুলাই মাসে নওয়াজ শরিফকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয় দেশটির একটি আদালত। পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়ে পড়ায় পদত্যাগে বাধ্য হন পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী এবং পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) এর প্রধান নওয়াজ শরিফ।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: