Friday, 14 December, 2018 | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

গৃহস্থালি কাজ অন্তর্ভুক্ত করলে জিডিপি ২৬ শতাংশ বাড়বে: ড. মোমেন

দৈনিকসিলেটডটকম:গৃহস্থালি সেবামূলক কাজকে জিডিপিতে অন্তর্ভুক্ত করা হলে দেশের জিডিপি ২৬ শতাংশ বেড়ে যেতে পারে, এমন মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

সোমবার সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) ‘গৃহস্থালি সেবামূলক কাজ; চাই স্বীকৃতি, মূল্যায়ন ও পুণর্বণ্টন’ শীর্ষক ন্যাশনাল ডিবেট ক্যাম্পেইন-২০১৮’র সিলেট বিভাগের সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সমাজ ও দেশের সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে পুরুষদের এগিয়ে এসে নারীদের গৃহস্থালি সেবামূলক কাজে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয়ার আহবান জানান তিনি।

তিনি বলেন, সমাজে সমৃদ্ধি রক্ষা করতে প্রয়োজন পুরুষদের গৃহস্থালি সেবামূলক কাজে অংশগ্রহণ বৃদ্ধি। আর এই জন্য প্রয়োজন সচেতনতা তৈরী এবং গৃহস্থালি সেবামূলক কাজকে অর্থকরী কাজ হিসেবে স্বীকৃতি দান।

ঘরের সেবামূলক কাজকে অর্থনৈতিক মানদন্ডে স্বীকৃতি দিলে মানুষের কাছে এই কাজের মর্যাদা ও গুরুত্ব বৃদ্ধি পাবে, তিনি বলেন।

বাংলাদেশে একজন নারীকে তার জীবনের প্রায় ১২ বছর কাটাতে হয় রান্নাঘরে। একজন নারী গৃহস্থালি সেবামূলক কাজে দৈনিক সময় দেন ৭.৭৭ ঘন্টা এবং পুরুষরা সময় দেন ১.৩২ ঘন্টা- একশনএইড বাংলাদেশের এই গবেষণা ফলাফলের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই ব্যবধান কমিয়ে আনা প্রয়োজন এবং সে জন্য নারী ও পুরুষ উভয়ের সমন্বয় উদ্যোগ প্রয়োজন বলে তিনি জানান।

সমাপনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, মডারেটর, শাহজালাল ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি। অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি এস. এম. রাকিব সিরাজী। তিনি বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতি এবং অর্থনীতিতে সিলেটের ভূমিকা অনস্বীকার্য।

একশন এইড বাংলাদেশ এবং ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি-ডিউডিএস আয়োজিত এই দেশব্যাপি বিতর্ক উৎসবের মূল বিষয় ‘গৃহস্থালি সেবামূলক কাজঃ চাই স্বীকৃতি, মূল্যায়ন ও পুনর্বন্টন’, আর এই আয়োজনে আঞ্চলিক সহায়তা করে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেডিটিং সোসাইটি এসইউডিএস।

দিনব্যাপি অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘গৃহস্থালি সেবামূলক কাজ’ বিষয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতার পাশাপাশি ছিল, বারোয়ারি বিতর্ক, বিষয়ভিত্তিক সেমিনার, বিতর্ক কর্মশালা এবং পুরষ্কার বিতরণী পর্ব।

সংসদীয় বিতর্কে জয়ী হয় পার্ক ভিউ মেডিকেল কলেজ এবং রানার আপ হয় এসইউডিএস।

সিলেট বিভাগীয় পর্যায়ের এই উৎসব উদ্বোধন করেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) এর কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোঃ ইলিয়াস উদ্দীন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাবিপ্রবি আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. হিমাদ্রী শেখর রায় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. জায়েদা শারমিন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ডিউডিএস সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আসাদ, শাহজালাল ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি মোঃ তোফায়েল আহমেদ এবং সাধারণ সম্পাদক রাইতাহ বিনতে আহসান।

সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবর মাসজুড়ে বিভিন্ন সময়ে দেশের আটটি বিভাগকে কেন্দ্র করে আঞ্চলিক পর্যায়ে ৬টি অনুষ্ঠান হচ্ছে। এরই মধ্যে খুলনা, ঢাকা-ময়মনসিংহ, রাজশাহী-রংপুর এবং চট্টগ্রাম-কুমিল্লা পর্যায়ের বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকল অনুষ্ঠান আয়োজন শেষে সর্বশেষ এবং সপ্তম আয়োজনে আঞ্চলিক পর্যায়ের বিজয়ী দলগুলোর সমন্বয়ে আয়োজিত হবে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা।

আয়োজকরা জানান, নারীর ক্ষমতায়ন, সর্বোপরি দেশের উন্নয়নের এই আন্দোলনকে ত্বরান্বিত করতে তরুণ সমাজ রাখতে পারে অগ্রণী ভূমিকা। তাই তাদের কাছে গৃহস্থালি সেবামূলক কাজ বিষয়টি সম্পর্কে তুলে ধরা এবং তাদের মাধ্যমে পুরো দেশকে একটি প্রচলিত ধ্যান-ধারণা ভেঙ্গে দিয়ে প্রগতির পথে এগিয়ে নেওয়ার জন্য এই আয়োজন।

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: