Saturday, 25 May, 2019 | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |
Advertisement

শিগগিরই আড়াই হাজার প্রতিষ্ঠানের এমপিও: শিক্ষামন্ত্রী

দৈনিকসিলেটডেস্ক: খুব দ্রুতই প্রায় আড়াই হাজার প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তি করে নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন যে গত বছর চারটি ক্রাইটেরিয়া ঠিক করে অনলাইনে আবেদন নেয়া হয়েছিল। প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের যে তথ্য দিয়েছে সেই তথ্যের ভিত্তিতে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে আমরা ওই যোগ্যতাগুলোর নিরিখে প্রতিষ্ঠানগুলো নিরুপণ করেছি। সেটির সংখ্যা আড়াই হাজারের কিছু বেশি হয়তো।

বুধবার সচিবালয়ে সভাকক্ষে শিক্ষা বিটের সাংবাদিকদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময়ে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, প্রায় আড়াই হাজার প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত সফটওয়ারে বাছাই হয়েছে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের দেয়া তথ্য মতে। আমরা যখন এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত নেবো সেই সিদ্ধান্তের পরে প্রতিষ্ঠানগুলো যে তথ্য দিয়েছে তার সঙ্গে প্রকৃত বিষয়টি যাচাই করে এমপিওভুক্তি হবে। সেখানে আমি আশা করি না যে, এই সংখ্যার খুব বেশি ব্যত্যয় হবে।

দীপু মনি বলেন, তারা (প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ) যে তথ্য দিয়েছেন আমি আশা করি তারা সঠিক দিয়েছেন। তারপরেও এমপিওভুক্তির জন্য বাছাই করা প্রতিষ্ঠান যদি কিছু কম-বেশি হয় তাহলে সেটাও হতে পারে।

একসঙ্গে এতো প্রতিষ্ঠান এমপিও করা হবে নাকি ধাপে ধাপে? এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমরা চাইছি যতটুকুই পারি তা একসঙ্গেই করবো। শিক্ষকরা বলেছেন- সবাইকে দেন সেটা কম করে হলেও। আপনারা ধরুন শতভাগ এমপিও এক হাজার বিদ্যালয়কে দেয়া হলো, যদি সেখানে পাওয়ার যোগ্য হয় যদি দুই হাজার প্রতিষ্ঠান। তাহলে পাশাপাশি দুটো প্রতিষ্ঠানের একটি পেল অপরটি পেল না। তখন যোগ্য নির্বাচিত হওয়ার পরেও না পাওয়ায় ক্ষোভ তৈরি হবে।

আমরা চাই সবার প্রতি একটি ন্যায্য আচরণ করতে। সেজন্য আমাদের অবস্থান হচ্ছে, আমরা চাই যে কয়টি প্রতিষ্ঠান যোগ্য নির্বাচিত হবে তাদের সকলকে এমপিও দিতে। সেটি যদি সরকার পারে একশ শতাংশ দেবে, সরকার যদি ২৫ শতাংশও পায় তাহলেও সেটি দিয়ে আমরা শুরু করতে চাই এবং যোগ্য নির্বাচিত সব প্রতিষ্ঠানকেই আমরা দিতে চাই। যোগ করেন শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি বলেন, তারপর আমরা প্রয়োজনে ধাপে ধাপে এমপিও’র শিক্ষকের সংখ্যা বাড়াবো। আর যারা যোগ্য বিবেচিত হতে পারেনি তাদেরকেও আমরা উৎসাহিত করবো তারাও যাতে সেই জায়গায় আসতে পারেন। পরবর্তী ধাপে আমরা তাদেরকে এমপিওভুক্ত করার চেষ্টা করবো।

তবে সমস্যা হচ্ছে প্রাপ্যতার চেয়ে অনেক জায়গায় বেশি প্রতিষ্ঠান আছে। সেক্ষেত্রেও আমাদের একটু চিন্তা-ভাবনা করতে হবে, আমরা কিছু স্কুল লঞ্চ করতে দিতে পারি কিনা সেটাও দেখা হবে। গত বছর দেখেছেন কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকে কেউই পাস করতে পারেনি। তাই এ সেক্টরটি নিয়ে আমরা ক্রমাগতই চিন্তা-ভাবনা করছি।

সর্বশেষ সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
দৈনিক সিলেট ডট কম
২০১১

সম্পাদক: মুহিত চৌধুরী
অফিস: ২৬-২৭ হক সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজার সিলেট
মোবাইল : ০১৭১ ২২ ৪৭ ৯০০,  Email: dainiksylhet@gmail.com

Developed by: