Thursday, 19 January, 2017 | ৬ মাঘ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
কলেজছাত্রী ঝুমাকে ছুরিকাঘাতকারী জকিগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার  » «   মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু  » «   ‘বাংলাদেশে বিশ্বমানের বাণিজ্যিক সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে’  » «   বাংলাদেশে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে বৃটিশ পার্লামেন্ট সেমিনার  » «   দিরাইয়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে, নিহতদের দাফন সম্পন্ন  » «   পুলিশকে সহযোগিতা করলে অপরাধ নির্মূল করা সহজ হবে: পুলিশ কমিশনার  » «   সাইফুর রহমানের কবর জিয়ারত করলেন আরিফ  » «   ‘অনলাইন প্রেসক্লাবই হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশের বাস্তব উদাহরণ’  » «   বাহুবলে মাইকে ঘোষণা দিয়ে সংঘর্ষ,আহত অর্ধশতাধিক  » «   ‘সিলেটবাসীর প্রত্যাশা পূরণ করতে লুৎফুর নিরলস ভাবে কাজ করবেন’  » «   প্রমাণ করুন মানুষ মানুষের জন্য…  » «   দিরাইয়ে দুই পক্ষের বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩  » «   মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে: বিভাগীয় কমিশনার  » «   জালালাবাদে দুইপক্ষের সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক  » «   ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা শুরু বুধবার  » «  





‘ফার্স্ট চাপটার অব লাভ’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠান

w1দৈনিকসিলেটডটকম: প্রবীন শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদ বলেছেন, যে লাইনগুলো মানুষের বুকে ঢেউ তোলে সেটা হচ্ছে কবিতা। কখনো কখনো কবির দুই একটা লাইন কবিকে অমর করে দিতে পারে। একটা আটারো বছর বয়সী ছেলে যদি তার কবিতা দিয়ে আমাদের মন ভুলাতে পারে তাহলে এটা তার জন্য বিরাট সাফল্য। তিনি বলেন, যদি কোন জিনিষে ঠিকমতো লেগে থাকা যায় তাহলে তার সাফল্য নিশ্চিত। কবি সাইদুর রহমান আবিদ-এর ‘ফার্স্ট চাপটার অব লাভ’ কাব্যগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
মঙ্গলবার নগরীর শিবগঞ্জের ইন্টারন্যাশনাল ল্যাংগুয়েজ একাডেমীতে এ প্রকাশনা অনুষ্ঠিত হয়।
প্রভাষক কবি নাজমুল আনসারীর সভাপতিত্বে ও কবি শওকত আখঞ্জীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক কবি বাছিত ইবনে হাবীব। মো: শাকিল আহমদের পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কবি সভা সিলেট জেলা শাখার সভাপতি কবি সিদ্দিক আহমদ। এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বইয়ের প্রকাশক জিবলু রহমান, কলামিষ্ট কবি জাহাঙ্গির হোসাইন চৌধুরী, গবেষক শফিকুল ইসলাম, কলামিষ্ট মো: আবদুল হক, কবি সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কবি কালাম আজাদ আরো বলেন, সাইদুর রহমান আবিদ আমার নাতি হয়। এখানে সে কবির নাতির মতো কাজ করেছে। সব পুরূষের জন্য একজন নারী ও সব নারীর জন্য একজন পুরুষ থাকে। একটা আবেগ কৈশরে খুব কাজ করে। যারজন্য পুরো বইটা একটা মেয়েকে ভালোবাসার ফলে লিখেছে। এই বইয়ের কিছু কিছু শব্দ খুব স্পর্ষ করেছে আমায়।
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে বাছিত ইবনে হাবীব বলেন, ইংরেজী চর্চা ও সাহিত্যের দুর্দিনে আমরা ইংরেজীতে একটি বই উপহার পেয়েছি। সাইদুর রহমান আবিদকে এজন্য উৎসাহ দেয়া প্রয়োজন। একটি বইকে ইংরেজীতে সুন্দরভাবে সাজাতে পেরেছে বলে তাকে ধন্যবাদ। তীব্র প্রেমের ভাবাভেগে সে লেখা শুরু করেছে। সাহিত্যের নদীতে ঝাপ যেহেতু দিয়েছে সেহেতু তাকে পাড়ে উঠতে হবে।
স্বাগত বক্তব্যে কবি সিদ্দিক আহমদ বলেন, তরুনদেরকে সাহিত্য সেবায় উদ্ভুদ্ধ করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আগামিতে বাংলা সাহিত্য আরও সমৃদ্ধ হবে।
লেখকের অনুভুতি ব্যক্ত করতে গিয়ে সাইদুর রহমান আবিদ বলেন, একজনকে খুব বেশি ভালোবাসি বলেই এই বইয়ের জন্ম হয়েছে। তাকে খুশি করতে গিয়েই এ বইয়ের জন্ম। আমি এজন্য আমার প্রেয়সীকে ধন্যবাদ জানাই। সেজন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি।
সভাপতির বক্তব্যে নাজমুল আনসারী বলেন, লেখক একজন তরুণ। তার শেখার ও চর্চা করার অনেক সময় রয়েছে। এরজন্য তাকে দীর্ঘদিন চর্চা করতে হবে। তরুন সমাজকে ভুল পথে না গিয়ে সাহিত্য করতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: