12

Monday, 27 February, 2017 | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে ওয়াজ মাহফিল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, পুলিশসহ দু’শতাধিক আহত  » «   সিলেটে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্বৃত্তদের হামলা ও ভাঙচুর  » «   নবীগঞ্জ থানার কনস্টেবল নীলাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা  » «   ওসমানীনগরে নির্বাচনী সংঘর্ষে আরেকজনের মৃত্যু  » «   ভোটারদের মন জয় করতে নানা কৌশল প্রার্থীদের  » «   জগন্নাথপুরে সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ২৫  » «   ভালোবাসার সম্পর্কের কথা খাদিজা অস্বীকার করলেন  » «   দ্বিতীয়বার ক্ষমা চাইলেন বেঙ্গল চেয়ারম্যান লিটু  » «   হবিগঞ্জে ২ শিশু হত্যার দায়ে ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড  » «   মহাজনপট্টি থেকে ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার  » «   ওসমানীনগরে নির্বাচনী সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩০  » «   ফুলকলিতে মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য, ২০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   ‘আমার ফাঁসি হোক, ‘সুখী হও খাদিজা,  » «   সিলেটবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করলেন বেঙ্গলের লিটু  » «   বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ১ মার্চ  » «  





সিলেটী বধু মাহি শুঁটকির ব্যবসা করবেন!

w1আহমেদ জামান শিমুল: ‘একটা ব্যবসা চালানোর মতো সময়, ধৈর্য কোনোটাই আমার নেই। ভবিষ্যতে ইচ্ছে আছে শুটকির ব্যবসা করব।’— কথাগুলো সম্প্রতি একের পর এক সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হওয়া নায়িকা মাহিয়া মাহির। সিনে বিশ্লেষকরা মনে করছেন, ২০১৭ সাল এ নায়িকার জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে তিনি বলেন, ‘আমি আসলে জানি না। কারণ হচ্ছে ভবিষ্যত চিন্তা করে কখনো কাজ করতে পারিনি, এখনো পারি না।’

২০১৬ সালে মুক্তি পায় মাহির দুই সিনেমা— অনেক দামে কেনা ও কৃষ্ণপক্ষ। বর্তমানে তার হাতে রয়েছে ৮-৯টি বড় বাজেটের ছবি। সম্প্রতি ক্যারিয়ারের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ‘প্রেমের বাঁধন’-এর মাহির মুখোমুখি হয় পরিবর্তন ডটকম।
দৈনিকসিলেটডটকম-এর পাঠকদের জন্য তা হুবহু এখানে তোলে ধরা হলো:

২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত প্রতি ঈদে আপনার ছবি ছিল, ২০১৬ সালে ছিল না। এ নিয়ে খারাপ লাগা কাজ করেনি?

কেন জানি খারাপ লাগা কাজ করেনি। ভেবেছিলাম ঈদে ছবি না আসতেই পারে। জানি না ১৯, ২০ বা ২১— কোনো ঈদে আমার ছবি মুক্তি পাবে। তবে এটা জানি ছবি ক্লিক করবে, কারণ অনেকগুলো ঈদে আমার ছবি ছিল না।

২০১৭ সালে আপনার বেশ কিছু বড় ছবি মুক্তি পাবে। এর মধ্যে কোনটি আগে মুক্তি পেতে পারে আর কোনটি সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করবে?

আসলে যাদের ছবি করছি তাদের উপর নির্ভর করছে— কারা আগে মুক্তি দিবে। এখন ৫০ লাখ টাকার ছবি ক্লিক করতে পারে। আবার ৫০ কোটি টাকার ছবি হয়েও ক্লিক না করতে পারে। আমি বিশ্বাস করি যে কোনো প্রজেক্ট ক্লিক করতে পারে।

ফেসবুকে বলেছেন ‘গোলাপতলীর কাজল’ আপনার সবচেয়ে প্রিয় ছবি। কেন?

আমি সবসময় একটা চরিত্র চাইতাম ‘আনন্দ অশ্রু’র শাবনূর ম্যাডামের ‘দোলা’ চরিত্রটি। যেটা আমি ‘গোলাপতলীর কাজল’-এ পেয়েছি। বাকিগুলোতে দেখা যায় গল্প মোটামুটি সুন্দর, তারপরও কী জানি নেই।

তাহলে এর বাইরে অন্য কোনো ছবি নিয়ে আশাবাদী না!

না, তা না। চুক্তিবদ্ধ বাকি ছবিগুলোতে তো এখনো অভিনয় করিনি, তাই ওইগুলো নিয়ে বলতে পারছি না।। আর ‘গোলাপতলীর কাজল’-এ আমি ‘বরফি’ (বরফি সিনেমায় মূল চরিত্র) ও ‘দোলা’ পেয়েছি। যদিও এটিতে অভিনয়ের আগে আমার খুব একটা উচ্চাশা ছিল না। কিন্তু শুটিংয়ের সময় আমার কেন জানি মনে হয়েছে এর গল্প ‘পোড়ামন’-এর চেয়ে শক্তিশালী।

আগে একটা ছবি শেষ করে আরেকটা ছবি করতেন…

আগে একটা একটা করে ছবির নিউজ হতো। তাই সবাই ভাবত আমি মনে হয় বেশি ছবি করছি না। আর এখন যেটা হয়েছে আমি কিছু বলার আগেই পরিচালকরা সংবাদ প্রকাশ করে ফেলছেন। এছাড়া আগে একটা ছবিতে শিডিউল দিতাম টানা ৩০ দিন। এখন অনেকে টানা শুটিং করতে পারেন না। ওই খালি সময়ে অন্য ছবি করছি।

এতে করে মাহির যে ব্র্যান্ডিং তৈরি হয়েছে তা কিছুটা হলেও ক্ষতিগ্রস্ত হবে না? আপনার ভক্তদের মানসম্পন্ন সিনেমা কি উপহার দিতে পারবেন?

আসলে বলতে পারব না— কী হবে। কোনো চরিত্রের আগে আমি আলাদা কোন প্রস্তুতি কখনও নিই না। আর আমি ডাবিংয়ের সময় তো ছবিটা দেখব। এরপর বুঝব দর্শকদের কেমন লাগবে। ইনশাল্লাহ ভালো কিছু হবে।

বেছে বেছে সিনেমা করার প্রবণতা থেকে মনে হয় কিছুটা সরে এসেছেন।

ছবি নিয়ে ব্যাপারে আমি আসলে কখনো চুজি ছিলাম না। চুক্তির আগে খুব একটা চিন্তা করি না। আগে করতাম কী— খুব ঘুরে বেড়াতাম। এখন যেটা মনে হয়েছে আমার একটু বেশি প্রফেশনাল হওয়া উচিত। ঘোরাঘুরি কম করা উচিত। দুইবছর আগে বয়স কম ছিল। এখন বয়সের সাথে অভিজ্ঞতাও বেড়েছে।

এ অভিজ্ঞতা ছবি পছন্দে প্রভাব বিস্তার করছে না?

পুরো ব্যাপারটা আসলে আমার মেজাজের উপর নির্ভর করে। যখন খুব ঘুরতে ইচ্ছে করছে তখন আমি খুব ভাল একটা সিনেমা ছেড়ে দিই। এটা ভালো না, ওটা ভালো না বলে। আবার চারপাশে শুটিং ইউনিট, মেকআপ আর্টিস্টরাসহ সবাই কাজ করছে— তখন একটা পচা প্রজেক্ট আসলেও রাজি হয়ে যাই।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসার কী খবর?

আমি কখনো প্রযোজনা সংস্থা খুলিনি। অন্যদের প্রযোজনায় কাজ করতে ভালো লাগে। নিজের প্রযোজনা সংস্থা চালাতে বেশ খরচ আছে। আর ব্যবসা আমাকে দিয়ে হবে না।

কেন? ‘স্কপরিয়ন হাট’ থেকে তো অনেক লাভ করেছিলেন।

২০০ এর উপরে ইয়ালো রোমান্স (টেবিল ল্যাম্প) বিক্রি হয়েছিল। লাখ টাকার উপর লাভ করেছিলাম। তারপরও একটা ব্যবসা চালানোর মতো সময়, ধৈর্য্য কোনটাই আমার নেই। ভবিষ্যতে ইচ্ছে আছে শুঁটকির ব্যবসা করব।

তাহলে স্করপিয়ন থেকে ‘মায়ার বাঁধন’ হচ্ছে না?

এটা আসলে এখন বলতে চাইছি না।

যৌথ প্রযোজনার ছবি করার কথা শোনা যাচ্ছে?

হ্যাঁ, ওয়াজেদ আলী সুমন ভাইয়ের ছবিটা করছি। তবে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিবদ্ধ হইনি।

মোশাররফ করিম বা আরিফিন শুভ’র সাথে ছবিগুলো?

এখনো তো আমার কাছে প্রস্তাবই আসেনি। ব্যাপারটি হয়েছে কী— পরিচালকরা আমাকে নিয়ে চিন্তা করছেন, এটা নিয়েই খবর প্রকাশিত হচ্ছে। ছবি করা আর কেউ আমাকে নেওয়ার চিন্তা করা এক কথা না।

সর্বশেষ প্রশ্ন। নতুন বছরে মাহির সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ কোনটা?

আমি আসলে জানি না। কারণ হচ্ছে ভবিষ্যত চিন্তা করে কখনো কাজ করতে পারিনি, এখনো পারি না।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: