Monday, 23 January, 2017 | ১০ মাঘ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
কোম্পানীগঞ্জে টিলা ধসে নিহত ২  » «   আরিফের বাসায় আসাদ: রাজনৈতিক সৌহার্দ না অন্য কিছু  » «   একটি সাঁকো, আট গ্রামবাসীরদুর্ভোগ!  » «   বাসা দখল করতে গিয়ে আটক ছাত্রলীগ নেতা আলীকে বহিষ্কার  » «   সাংবাদিক নাজমুলের মুক্তি দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন  » «   মেয়র হীন সিলেট সিটি করপোরেশন আর কত দিন  » «   জকিগঞ্জ সীমান্তে ১৭ বাংলাদেশীকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে  » «   আখেরি মোনাজাতে মানুষের ঢল  » «   চুনারুঘাটে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০  » «   সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, সিলেটের দ্বিবার্ষিকী সম্মেলন সম্পন্ন  » «   ছাত্রলীগ নেতা আলী গ্রেফতার  » «   নগরীর ‘খামখা ওভার ব্রিজ’ জলে গেল দেড় কোটি টাকা  » «   নদী যখন মেঠোপথ!  » «   জকিগঞ্জে প্রবাসীর ছেলেকে কুপিয়ে জখম  » «   দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্কাউট সমাবেশের সম্পন্ন  » «  





সাত দিনে ২২ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে: জাতিসংঘ

w1দৈনিকসিলেটডেস্ক:মায়ানামারের রাখাইন প্রদেশে চলমান অস্থিরতা থেকে পালিয়ে গত সাত দিনে ২২ হাজার রোহিঙ্গা মুসলমান সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

গত অক্টোবর থেকে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে বর্মি সেনাবাহিনীর অভিযান শুরুর পর এ নিয়ে ৬৫ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বলে সংস্থাটি জানায়।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সমন্বয় অফিস সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে। এতে বলা হয়, বাস্তুচ্যুত শরণার্থীরা নিবন্ধিত শিবির, অস্থায়ী বসতিতে এবং কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে।
জাতিসংঘের মানবিকবিষয়ক সমন্বয় দপ্তর জানায়, ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত ৬৫ হাজারের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের কক্সবাজার এলাকার নিবন্ধিত ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে।

গত ৯ অক্টোবর মায়ানমারের সীমান্ত পুলিশের অবস্থানে হামলার প্রতিক্রিয়ায় বর্মি আর্মি ‘ক্লিয়ারেন্স অপারেশন’ নামে ঢালাওভাবে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন শুরু করে।

তাদের নির্যাতন থেকে বাঁচতে হাজার হাজার রোহিঙ্গারা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। আশ্রয় শিবিরে এসব নির্যাতিতরা বর্মি সেনাবাহিনী কর্তৃক মানবাধিকার লঙ্ঘনের মর্মভেদী কাহিনী শুনাচ্ছে।

রোহিঙ্গা গ্রামগুলোতে বার্মি সেনারা গণধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। এসব এলাকায় সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মীদের প্রবেশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে এবং প্রায় ১,৩০,০০০ অসহায় মানুষ সেখানে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

এদিকে জাতিসংঘের বিশেষ দূত হয়ে আসা ইয়াংহি লিকে রাখাইন রাজ্যের বিভিন্ন অংশ ঘুরিয়ে দেখানো হয়েছে। তবে তার পরিদর্শন এলাকা ছিল সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত।

সূত্র: টাইম ম্যাগাজিন

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: