ad3

Saturday, 25 March, 2017 | ১১ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
এবার জঙ্গিদের ফ্ল্যাটে অভিযান শুরু করেছে প্যারা কমান্ডো  » «   ‘অপারেশন টোয়াইলাইট’: এ পর্যন্ত নারী শিশুসহ ৫১ জন উদ্ধার  » «   আতিয়া মহল থেকে ২০ বাসিন্দা উদ্ধার  » «   অভিযান অব্যাহত এপর্যন্ত ৫ জন কে উদ্ধার  » «   সিলেটের জঙ্গি আস্তানায় অপারেশন চলছে  » «   সিলেটে জঙ্গি আস্তানায় অপারেশন ‘স্প্রিং রেইন’ শুরু  » «   শিববাড়ির ওই বাড়িতে জঙ্গি ধরতে চুড়ান্ত অভিযান শুরু হচেছ!  » «   জঙ্গি আস্তানা ঘিরে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে কেটেছে সারা রাত  » «   বিমানবন্দর সড়কের গোলচত্বরে বিস্ফোরণ, নিহত ১  » «   পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে সেনাবাহিনীর একটি দল  » «   সিলেট এসে পৌঁছেছে‘সোয়াত’ টিম  » «   সিলেটের জঙ্গি আস্তানা থেকে নারীকণ্ঠে তাকবীর ধ্বনি ভেসে আসছে!  » «   দক্ষিণ সুরমার জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরু হবে সোয়াত এলেই  » «   দক্ষিণ সুরমার শিববাড়িতে জঙ্গি আস্তানা ঘিরে রেখেছে পুলিশ  » «   বিয়ানীবাজার পৌরসভায় আ’লীগে মনোনয়ন পেলেন আব্দুস শুকুর  » «  





ড. মোমেন বললেন ছোটবেলার ভিক্ষা করেছি

w1দৈনিকসিলেটডটকম: বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও জাতিসংঘে বাংলদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত ড.এ কে আব্দুল মোমেন বললেন ছোটবেলার তিনি এবং তার মা ভিক্ষা করেছেন। তবে এ ভিক্ষা নিজেদের জন্য নয় কিশোরীমোহন সরকারী (বালক) প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরেছেন।
১৯৩০ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে জাতীয়করণের পূর্ব পর্যন্ত স্কুলটি অনেকবার বন্ধ হয়ে গিয়েছিল আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে।

অর্থমন্ত্রী ও ড. মোমেনের মা সৈয়দা শাহারবানু চৌধুরী বহুবছর এ স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ছিলেন। স্কুলের আর্থিক অসচ্ছলতা দুর করতে শাহারবানু শহরের বিত্তশালীদের কাছে যেতেন। বাসায় বাসায় গিয়ে টাকা-পয়সা বা ধান-চাল জোগাড় করতেন। নিজের আত্মীয় স্বজনসহ সবার কাছেই তিনি স্কুলটির জন্য সাহায্য চাইতেন। তখন ছোট্ট মোমেনও মা’র সহযাত্রী হতেন।
কিশোরীমোহন সরকারী (বালক) বিদ্যালয়ে সেই মহিয়সী মহিলার নামে একটি ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। ‘সৈয়দা শাহারবানু চৌধুরী ভবন’। চারতলা ফাউন্ডেশনের ২তলার কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুরে তা উদ্বোধন করতে এসেছিলেন অর্থমন্ত্রীসহ তার পরিবারের সদস্যরা।
এসময় ড. মোমেন এ তথ্য উপস্থাপন করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: