12

Monday, 27 February, 2017 | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে ওয়াজ মাহফিল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, পুলিশসহ দু’শতাধিক আহত  » «   সিলেটে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্বৃত্তদের হামলা ও ভাঙচুর  » «   নবীগঞ্জ থানার কনস্টেবল নীলাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা  » «   ওসমানীনগরে নির্বাচনী সংঘর্ষে আরেকজনের মৃত্যু  » «   ভোটারদের মন জয় করতে নানা কৌশল প্রার্থীদের  » «   জগন্নাথপুরে সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ২৫  » «   ভালোবাসার সম্পর্কের কথা খাদিজা অস্বীকার করলেন  » «   দ্বিতীয়বার ক্ষমা চাইলেন বেঙ্গল চেয়ারম্যান লিটু  » «   হবিগঞ্জে ২ শিশু হত্যার দায়ে ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড  » «   মহাজনপট্টি থেকে ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার  » «   ওসমানীনগরে নির্বাচনী সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩০  » «   ফুলকলিতে মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য, ২০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   ‘আমার ফাঁসি হোক, ‘সুখী হও খাদিজা,  » «   সিলেটবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করলেন বেঙ্গলের লিটু  » «   বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, যুক্তিতর্ক উপস্থাপন ১ মার্চ  » «  





আনু কারাগারে, নিখোঁজ পারুল এখন কোথায়?

w1আজিজুল ইসলাম সজিব: হবিগঞ্জ শহরে নিজের মামলায় নিজেই ফেঁসে গেলেন আলোচিত আনোয়ারা বেগম আনু। মিথ্যা মামলা দিয়ে আদালতকে বিভ্রান্ত ও নিরপরাধ লোকদের হয়রানী করায় আলোচিত মামলাবাজ আনোয়ারা বেগম আনু নামে ওই মহিলার বিরুদ্ধে আদালতের নির্দেশে নারী ও শিশু পাচার আইনে পাল্টা মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, আনোয়ারা বেগম আনুর দায়েরকৃত মিথ্যা মামলার আাসামীদের বেকসুর খালাস ও তাকে অবশেষে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালত সূত্র জানায়, ২০১৫ ইং সনের ৫ সেপ্টেম্বর হবিগঞ্জ শহরের উত্তর শ্যামলী এলাকার কদর আলীর কন্যা আনোয়ারা বেগম আনু নারী ও শিশু পাচার আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় নবীগঞ্জ উপজেলার খাগাউড়া গ্রামের লুদাই মিয়ার পুত্র শওকত মিয়াসহ ৫ জনকে আসামী করা হয়। মামলায় উল্লেখ করা হয়, বাদিনী আনোয়ারা বেগম আনুর খালাত বোন পারুল বেগমকে বিদেশে পাচার করেছে আসামীরা। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে মামলার কার্যক্রম চলার পরও বাদিনী আদালতে অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেননি। যে কারণে মঙ্গলবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক আতাব উল্লা আসামীদের বেকসুর খালাস দেন। পাশাপাশি আদালতকে বিভ্রান্ত ও নিরপরাধ লোকদের হয়রানী এবং পারুল বেগমের সন্ধান লাভের উদ্দেশ্যে নারী ও শিশু পাচার আইনে আনোয়ারা বেগমের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলার বাদি হন, বেকসুর খালাসপ্রাপ্ত আসামী শওকত মিয়ার ভাই সৈকত মিয়া। মামলা দায়েরের পর আনোয়ারা বেগম আনুকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। এদিকে, এ ঘটনায় নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এলাকাবাসীর জিজ্ঞাসা, আনুর খালাত বোন নিখোঁজ পারুল এখন কোথায়? উল্লেখ্য, আনোয়ারা বেগম আনু ইতিপূর্বে বিভিন্ন মানুষের বিরুদ্ধে মামলা করে আলোচিত হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: