12

Thursday, 23 February, 2017 | ১১ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
সুস্থ খাদিজা এখন বাড়ি ফেরার অপেক্ষায়  » «   বিএনপি সন্ত্রাসী সংগঠন: কানাডার আদালত  » «   ডিজিটালের ছোয়া লাগেনি সিলেট সাবরেজিস্ট্রি অফিসে  » «   নিরাপত্তা হেফাজতে সিলেটের আবিদা  » «   বাংলাদেশ উন্নতির মহাসড়কে এগিয়ে চলেছে:অর্থমন্ত্রী  » «   নিবন্ধন নিয়ে সিলেটে বনপার জরুরী সভা  » «   সৌদি থেকে ফিরলেন নবীগঞ্জের সেই ‘গৃহকর্মী’  » «   বিআরটিএ অফিসে দুদক আতঙ্ক!  » «   যুক্তরাষ্ট্রে যেতে দেওয়া হলো না বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিককে  » «   সিলেটে দশদিনব্যাপী বেঙ্গল সংস্কৃতি উৎসব শুরু হচ্ছে আজ  » «   চুরি হতে পারে আপনার আঙুলের ছাপ!  » «   এ কেমন শ্রদ্ধা?  » «   আরিফুল হক চৌধুরীকে নিয়ে সিসিক কাউন্সিলরদের শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন  » «   বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানুষের ঢল  » «  





ফের পেছাল কিবরিয়া হত্যা মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ

w1দৈনিকসিলেটডটকম: সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা মামলায় বুধবার সিলেটের সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জ পৌরসভার সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র জি কে গৌছ আদালতে হাজিরা দিলেও সাক্ষী হাজির না হওয়ায় সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি। এ অবস্থায় আদালত আগামী ১৮ জানুয়ারি সাক্ষ্য গ্রহণের পরবর্তী তারিখ ধার্য্য করেছেন।
সদ্য জামিন লাভকারী আরিফুল হক ও গৌছ বুধবার দুপুরে সিলেট বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মকবুল আহসানের আদালতে হাজিরা দেন। কিন্তু কোন সাক্ষী না আসায় আদালত মামলার নতুন তারিখ ধার্য্য করেন বলে জানান দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের পিপি এডভোকেট কিশোর কুমার কর।
গত ৪ জানুয়ারি কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হন আরিফ-গৌছ। কিবরিয়া হত্যা মামলার সম্পূরক অভিযোগপত্রে নাম আসায় ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর হবিগঞ্জের জৈষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর থেকে কারাগারে ছিলেন আরিফ। কিবরিয়া হত্যা মামলার পর এ ঘটনায় দায়ের করা বিস্ফোরক মামলায়ও অভিযুক্ত হন আরিফ ও গৌছ। এরপর সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সমাবেশে বোমা হামলা মামলায়ও তাদের অভিযুক্ত করা হয়। বর্তমানে সবকটি মামলায় জামিনে রয়েছেন তারা।
উল্লেখ্য, ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা শেষে ফেরার পথে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া ও তার ভাতিজা শাহ মঞ্জুর হুদাসহ পাঁচজন। ওই হামলায় আহত হন ৪৩ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: