Monday, 23 January, 2017 | ১০ মাঘ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
কোম্পানীগঞ্জে টিলা ধসে নিহত ২  » «   আরিফের বাসায় আসাদ: রাজনৈতিক সৌহার্দ না অন্য কিছু  » «   একটি সাঁকো, আট গ্রামবাসীরদুর্ভোগ!  » «   বাসা দখল করতে গিয়ে আটক ছাত্রলীগ নেতা আলীকে বহিষ্কার  » «   সাংবাদিক নাজমুলের মুক্তি দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন  » «   মেয়র হীন সিলেট সিটি করপোরেশন আর কত দিন  » «   জকিগঞ্জ সীমান্তে ১৭ বাংলাদেশীকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে  » «   আখেরি মোনাজাতে মানুষের ঢল  » «   চুনারুঘাটে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০  » «   সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, সিলেটের দ্বিবার্ষিকী সম্মেলন সম্পন্ন  » «   ছাত্রলীগ নেতা আলী গ্রেফতার  » «   নগরীর ‘খামখা ওভার ব্রিজ’ জলে গেল দেড় কোটি টাকা  » «   নদী যখন মেঠোপথ!  » «   জকিগঞ্জে প্রবাসীর ছেলেকে কুপিয়ে জখম  » «   দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্কাউট সমাবেশের সম্পন্ন  » «  





ফের পেছাল কিবরিয়া হত্যা মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ

w1দৈনিকসিলেটডটকম: সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা মামলায় বুধবার সিলেটের সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জ পৌরসভার সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র জি কে গৌছ আদালতে হাজিরা দিলেও সাক্ষী হাজির না হওয়ায় সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি। এ অবস্থায় আদালত আগামী ১৮ জানুয়ারি সাক্ষ্য গ্রহণের পরবর্তী তারিখ ধার্য্য করেছেন।
সদ্য জামিন লাভকারী আরিফুল হক ও গৌছ বুধবার দুপুরে সিলেট বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মকবুল আহসানের আদালতে হাজিরা দেন। কিন্তু কোন সাক্ষী না আসায় আদালত মামলার নতুন তারিখ ধার্য্য করেন বলে জানান দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের পিপি এডভোকেট কিশোর কুমার কর।
গত ৪ জানুয়ারি কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হন আরিফ-গৌছ। কিবরিয়া হত্যা মামলার সম্পূরক অভিযোগপত্রে নাম আসায় ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর হবিগঞ্জের জৈষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর থেকে কারাগারে ছিলেন আরিফ। কিবরিয়া হত্যা মামলার পর এ ঘটনায় দায়ের করা বিস্ফোরক মামলায়ও অভিযুক্ত হন আরিফ ও গৌছ। এরপর সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সমাবেশে বোমা হামলা মামলায়ও তাদের অভিযুক্ত করা হয়। বর্তমানে সবকটি মামলায় জামিনে রয়েছেন তারা।
উল্লেখ্য, ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা শেষে ফেরার পথে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া ও তার ভাতিজা শাহ মঞ্জুর হুদাসহ পাঁচজন। ওই হামলায় আহত হন ৪৩ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: