12

Thursday, 23 February, 2017 | ১১ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
সুস্থ খাদিজা এখন বাড়ি ফেরার অপেক্ষায়  » «   বিএনপি সন্ত্রাসী সংগঠন: কানাডার আদালত  » «   ডিজিটালের ছোয়া লাগেনি সিলেট সাবরেজিস্ট্রি অফিসে  » «   নিরাপত্তা হেফাজতে সিলেটের আবিদা  » «   বাংলাদেশ উন্নতির মহাসড়কে এগিয়ে চলেছে:অর্থমন্ত্রী  » «   নিবন্ধন নিয়ে সিলেটে বনপার জরুরী সভা  » «   সৌদি থেকে ফিরলেন নবীগঞ্জের সেই ‘গৃহকর্মী’  » «   বিআরটিএ অফিসে দুদক আতঙ্ক!  » «   যুক্তরাষ্ট্রে যেতে দেওয়া হলো না বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিককে  » «   সিলেটে দশদিনব্যাপী বেঙ্গল সংস্কৃতি উৎসব শুরু হচ্ছে আজ  » «   চুরি হতে পারে আপনার আঙুলের ছাপ!  » «   এ কেমন শ্রদ্ধা?  » «   আরিফুল হক চৌধুরীকে নিয়ে সিসিক কাউন্সিলরদের শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন  » «   বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানুষের ঢল  » «  





লন্ডনি স্বামীর উপহার রক্ষায় সিলেটের বধূ নিজু আক্তারের লড়াই

w1ওয়েছ খছরু:অল্প বয়সেই বিধবা হন সিলেটের নিজু আক্তার। বিয়ের কয়েক মাসের মাথায় নিজুকে সিলেটের বাসা উপহার দিয়ে হামিদ চলে যান লন্ডনে। কিন্তু আর ফিরেননি। লন্ডনেই মারা যান আবদুল হামিদ। স্বামী হারানোর শোক সইতে না সইতে নিজুর ওপর হামিদের স্বজনদের অত্যাচার। উপহার পাওয়া বাসা কেড়ে নিতে নানা ফঁন্দি আটছে তারা। এ নিয়ে হয়েছে সালিশ বৈঠক, হয়েছে জিডিও। এ অবস্থায় নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছেন নিজু। এ নিয়ে বুধবার তিনি সিলেটে সংবাদ সম্মেলন করে প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন। নিজু আক্তার মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হওয়ায় তার পক্ষে এসে দাঁড়িয়েছেন সিলেটের মুক্তিযোদ্ধারা। তারাও নিজুর নিরাপত্তা দাবি করেছেন। সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের কামারখাল গ্রামের প্রবাসী হাজী আবদুল হামিদ স্ত্রী, ১ ছেলে ও ৬ মেয়ে নিয়ে স্থায়ীভাবে যুক্তরাজ্যে বসবাস করে আসছিলেন। প্রথম স্ত্রীর অসুস্থতার কারণে তার সম্মতিক্রমে ২০১৫ সালের ২৭শে মার্চ তিনি নিজু আক্তারকে বিয়ে করেন। নিজু আক্তার সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার মকসুদপুর গ্রামের মরহুম মুক্তিযোদ্ধা আবুল বরকতের মেয়ে। নিজুর স্বামী প্রবাসী আবদুল হামিদের গ্রামের বাড়িতে ১৮ কক্ষবিশিষ্ট দ্বিতল ভবন ও ২৪ থেকে ২৫ হাল ক্ষেতের ভূমিও রয়েছে। রয়েছে যুক্তরাজ্যে কয়েকটি রেস্টুরেন্টসহ অনেক সহায় সম্পত্তি। তাই তিনি তার প্রথম স্ত্রী ও সন্তানদের সম্মতিতে দ্বিতীয় স্ত্রী নিজু আক্তারকে সিলেট নগরীর পশ্চিম আখালিয়ার মাহমুদাবাদ এলাকাধীন তার এক ইউনিটের বাসা ‘হাজী আবদুল হামিদ ভবনে’ রেখে তার সঙ্গে ঘরবাস করেন। একই সঙ্গে বাসাটির দখল দ্বিতীয় স্ত্রী নিজুকে সমঝে দিয়ে ফের যুক্তরাজ্য চলে যান। সেখানে গিয়ে হামিদ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে নিজু নিজের অর্থায়নে ওই বাসার দ্বিতীয় ইউনিট নির্মাণসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করেন এবং কিছু অংশ ভাড়া দিয়ে ভোগদখল করতে থাকেন। এমতাবস্থায় ২০১৬ সালের ২৮শে নভেম্বর তার স্বামী হাজী আবদুল হামিদ যুক্তরাজ্যে মৃত্যুবরণ করেন। নিজুর বর্তমান আবাসস্থল হাজী আবদুল হামিদ ভবন নিয়ে তার সঙ্গে মৃত আবদুল হামিদের যুক্তরাজ্যে থাকা প্রথম স্ত্রী ও ছেলেমেয়েদেরও কোনো বিরোধ নেই। এমতাবস্থায় মুক্তিযোদ্ধা কন্যা নিজুকে অসহায় পেয়ে তার স্বামীর উত্তরাধিকারী নয় এমন একদল ভূমিখেকো চক্র নগরীর আখালিয়াস্থ নিজু আক্তারের বাসা ‘আবদুল হামিদ ভবন’ জবর দখল করে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তারা নিজুর বাসা আবদুল হামিদ ভবনে বারবার অনধিকার প্রবেশ করে তাকে বাসা ছেড়ে দিতে মানসিকভাবে নিপীড়নের পাশাপাশি হুমকি ধামকি দিয়ে চলেছে। সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার আমরিয়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী আলেয়া বেগম, জগন্নাথপুর উপজেলার কামারখাল গ্রামের মৃত হাজী তারিফ উল্লার পুত্র আবদুল হাসিম, জনৈকা  ফাতেমা বেগম, শামসুদ্দীন এবং তাদের সহযোগী একদল লোক নিজুকে বাড়িছাড়া করতে উঠে-পড়ে লেগেছেন। তারা সকলেই বহিরাগত এবং কেউই মরহুম হাজী আবদুল হামিদের উত্তরাধিকারী নন। গত বছরের ১লা ডিসেম্বর ও এ বছরের ৯ই জানুয়ারি আলেয়া ও হাসিমরা নিজুর বাসায় হানা দিয়ে জোরপূর্বক তাকে তাড়িয়ে  দেয়ার চেষ্টা করে। এ ঘটনায় নিজু আক্তার গত ১০ই জানুয়ারি জালালাবাদ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। যা সিলেটের জালালাবাদ থানার এসআই লোকমানের তদন্তে রয়েছে। থানায় সাধারণ ডায়েরি করেও নিরাপত্তা পাচ্ছেন না নিজু আক্তার। গত ৯ই ফেব্রুয়ারি আবদুল হাসিম, আলেয়া, শামসুদ্দীনরা দলবল নিয়ে নিজুর বাসায় প্রবেশ করে তাকে বাসা ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। অন্যথায় তাকে অপহরণ, হত্যা ও লাশ গুম করে ফেলবে বলে হুমকি দেয়। হাসিম ও আলেয়া চক্রের হুমকি-ধামকিতে নিজু আক্তার স্বজনদের নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। নিজু ও তার স্বজনরা তাদের জান-মালের নিরাপত্তা বিধানে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিজু আক্তারের মা নেহার বেগম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াছিব উল্লাহ, আবদুল কাদির, কুটু মিয়া, মছদ্দর আলী, আমির আলী, সেলিম উল্লাহ, আব্দুর করিম, ইউসুফ নূর, নূর মিয়া, ইদ্রিস আলী, নূরুল ইসলাম, আশ্রব আলী প্রমুখ।-মানবজমিন

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Developed by: