Saturday, 24 June, 2017 | ১০ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
দক্ষিণ সুরমায় ৪ জুয়াড়ি আটক  » «   গোলাপগঞ্জে যুবককে কুপিয়ে হত্যা  » «   সিলেটে আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবসে জেলা প্রশাসকের র‌্যালী ও আলোচনা  » «   সিলেটে আ. লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন  » «   সিলেটের ডাক বন্ধে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ  » «   বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে পানিবন্দি দুই লক্ষাধিক মানুষ  » «   গৌরবের ৬৯ বছরে আওয়ামী লীগ  » «   মানে নয়, নামেই গলা কাটছে আড়ং  » «   রথযাত্রা উপলক্ষে সিসিকের ৬ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান  » «   সিলেটে পৃথক অভিযানে ছিনতাইকারীসহ ৯ জুয়াড়ি আটক  » «   পবিত্র শবে কদর আজ  » «   ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সিলেট আওয়ামী লীগের কর্মসূচী  » «   বিশ্বনাথে নিহত মকরমের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম  » «   সমালোচিত অর্থমন্ত্রীর পক্ষ নিলেন তোফায়েল  » «   ঈদকে ঘিরে সিলেটে তিন স্তরের নিরাপত্তা  » «  
Advertisement
Advertisement

ঢাবি ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতালের পরিচালক গ্রেপ্তার

দৈনিকসিলেটডেস্ক:ভুল চিকিৎসায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় করা মামলায় ধানমন্ডির সেন্ট্রাল হাসপাতালের এক পরিচালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম এম এ কাশেম। বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ।  তিনি বলেন, ঘটনার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে থানায় আনা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের পর দায়ের করা মামলায় এম এ কাশেমের নাম থাকায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। বাকিজনকে ছেড়ে দেয়া হয়। কাশেম মামলার নয় নম্বর আসামি।

গুরুতর অসুস্থ হলে গত বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ছাত্রী আফিয়া জাহান চৈতীকে সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান তার ক্যান্সার হয়েছে। সে অনুযায়ী চিকিৎসাও চলে। তবে বৃহস্পতিবার চিকিৎসকরা জানায়, ক্যান্সার নয়, ওই ছাত্রী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। এজন্য অনেক রক্ত লাগবে বলে চিকিৎসকরা জানান। কিন্তু অভিভাবক রিপোর্ট দেখতে চাইলে দেখানো হয়নি। এর একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে তাকে ক্লিনিক্যাল ডেথ ঘোষণা করা হয় বলে সহপাঠিরা জানান।

ওই ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ক্ষুব্ধ সহপাঠীরা হাসপাতালটিতে ভাঙচুর শুরু করে।

এ ঘটনায় ঢাবির ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আমজাদ আলী বাদী হয়ে নয়জনকে আসামি করে ধানমন্ডি থানায় একটি মামলা করেন। মামলার আসামিরা হলেন- অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ, কাশেম ইউসুফ, ডা. মর্তুজা, লেফটেন্যান্ট কর্নেল এ এস এম মাতলুবুর রহমান, ডা. মাসুমা পারভীন, ডা. জাহানারা বেগম মোনা, ডা. মাকসুদ পারভীন ও ডা. তপন কুমার  বৈরাগী এবং হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. এম এ কাশেম। মামলার পর হাসপাতালের পরিচালক এম এ কাশেমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

Developed by: