Saturday, 24 June, 2017 | ১০ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সংবাদ শিরোনাম
ঈদে নিরাপত্তায় মেট্রোপলিটন পুলিশের আহবান…  » «   কানাইঘাটে পরকীয়া সম্পর্কের জেরে যুবক খুন: মামলা দায়ের  » «   অর্থমন্ত্রীর ঈদ শুভেচ্ছা, সিলেটবাসীর কাছে দু:খ প্রকাশ  » «   গ্যাস সিলিন্ডার: বিস্ফোরনের ঘটনা বাড়ছে, ক্ষুব্ধ সিলেটবাসী  » «   খোয়াই নদীর কূল ধ্বসে দোকান-পাঠ নদীতে বিলীন হচ্ছে  » «   যে কারণে মাধবকুন্ডে পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা  » «   দক্ষিণ সুরমায় ৪ জুয়াড়ি আটক  » «   গোলাপগঞ্জে যুবককে কুপিয়ে হত্যা  » «   সিলেটে আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবসে জেলা প্রশাসকের র‌্যালী ও আলোচনা  » «   সিলেটে আ. লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন  » «   সিলেটের ডাক বন্ধে অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্বেগ  » «   বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে পানিবন্দি দুই লক্ষাধিক মানুষ  » «   গৌরবের ৬৯ বছরে আওয়ামী লীগ  » «   মানে নয়, নামেই গলা কাটছে আড়ং  » «   রথযাত্রা উপলক্ষে সিসিকের ৬ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান  » «  
Advertisement
Advertisement

রমজানে ডায়াবেটিস রোগীর করণীয়

দৈনিকসিলেটডেস্ক: এই গ্রীষ্মে আসছে পবিত্র মাহে রমজান। প্রস্তুতি নিচ্ছেন ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা। মাহে রমজান একটি সুস্থ মানুষের জন্য যতটা চ্যালেঞ্জের, ডায়াবেটিস রোগীর জন্য তার থেকে অনেক বেশি কঠিন।

তবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও ইসলামী চিন্তাবিদরা রোজা রাখার পরামর্শই দিয়েছেন। রোজাদার ডায়াবেটিস রোগীদের অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। আসন্ন রমজানে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য কিছু পরামর্শ তুলে ধরা হলো-

রমজানে ডায়াবেটিস রোগীদের করণীয়ঃ

•    সেহরির শেষ সময়ের কিছু আগে সেহরির খাওয়া।

•    ইফতারের সময় বেশি চিনিযুক্ত খাবার না খাওয়া।

•    দিনের বেলা শারীরিক পরিশ্রম ও ব্যায়াম যতটা সম্ভব কমিয়ে দিয়ে ইফতারের এক ঘন্টা পর করা।

•    রাতের বেলা পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি (সম্ভব হলে ডাবের জল) পান করা।

•    কম মিষ্টি রসালো ফল এবং পুষ্টিকর খাবার খাওয়া।

•    রোজার সময় নিজে ডায়াবেটিসের ওষুধ সমন্বয় না করা, এতে মারাত্মক পরিণতি হতে পারে।

•    খাবারে তেলের পরিমাণ কমিয়ে দেয়া।

•    ভাজাপোড়া খাবার বর্জন করা।

•    প্রতিদিন খাদ্য গ্রহণের ক্যালরির পরিমাণ ও নির্দিষ্ট সময় অন্তর ওজন মাপা।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়গুলোঃ

•    রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা কমে যাওয়া (হাইপোগ্লাইসেমিয়া)।

•    রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া (হাইপারগ্লাইসেমিয়া)।

•    ডায়াবেটিস কিটোএ্যাসিডোসিস।

•    পানি শূন্যতা ও থ্রম্বোএম্বোলিজম।

•    কিডনি/লিভার/হার্টের সমস্যা ।

•    বয়োবৃদ্ধ ব্যক্তি যিনি একা একা থাকেন।

•    গর্ভবতী মহিলা এবং স্তনদানকারী মা।

রমজানে রোগীকে চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধ/ইনসুলিন এবং অন্যান্য ওষুধের সময়ের পরিবর্তন করতে হবে। রোজাদার ডায়াবেটিস রোগীর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সচেতন থাকতে হবে।

Developed by: